স্বামীর সাথে বিচ্ছেদ নিয়ে অভিনেত্রী নোভা যা বললেন

অভিনেত্রী নোভাকে চেনেন না এমন কেউ নেই, কেননা দারুণ সব উপস্থাপনা ও অভিনয় দিয়ে নোভাকে সবাই জানেন। অন্যদিকে তিনি আবার নির্মাতা রায়হান খানের স্ত্রী ছিলেন। দুর্ভাগ্যবশত তাদের মাঝে বিচ্ছেদ হয়ে যায়। রায়হান খান নিয়মিত নাটক নির্মাণ করছেন।

২০০৯ এর শেষের দিকে নির্মাতা রায়হান খান ও নোভার মধ্যে একটা প্রেমের সম্পর্কের শুরু হয়।

যদিও মিডিয়াতে তখন তারা গুঞ্জন বলেই উড়িয়ে দিয়েছিলেন কিন্তু শেষমেষ গুঞ্জনই পরিণত হয় সত্যতে। দেড় বছর প্রেম করার পর গত ২০১১ সালের ১১ নভেম্বর তারা বিয়ে করেছিলেন। এরপর ২০১৩ সালের ২৮ জুলাই তাদের ঘরে একটি পুত্র সন্তান আসে। তার নাম রাখা হয় রাফাজ সান্নিধ্য রায়হান। কিন্তু নিয়মিত ঝগড়া ও মতের অমিলে শেষমেষ প্রায় পাঁচ বছর সংসার করা পর আর টিকিয়ে রাখতে পারেননি। তাই ঘটে গেল বিচ্ছেদ। গত ২৬ আগস্ট ঢাকা জজকোর্ট কাজী অফিসে গিয়ে তারা দু’জনই তালাকনামায় স্বাক্ষর করেন।

কিন্তু কেন এই বিচ্ছেদ বা তাদের একমাত্র সন্তানের এখন কী হবে এবং নোভার বর্তমান ইচ্ছাটা কী? তাই নিয়ে উপস্থাপিকা ও অভিনেত্রী নোভা গণমাধ্যমে কথা বলেছেন।

নোভা বলেন, আমাদের তো আর ঝগড়া করে বা রাগারাগি করে বিচ্ছেদ হয়নি। বিচ্ছেদ হয়েছে আমাদের দুজনের সম্মতিতে, তাই আছি ভালো।

ছেলে সান্নিধ্যর জন্যই তো নাকি তাদের বিচ্ছেদটা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, আমি চাইনি যে আমার আর রায়হানের মধ্যে যে মনোমালিন্য হয় বা ঝগড়া হয় তা যেন সান্নিধ্যর উপর প্রভাব না ফেলে। আমি আর রায়হান আলাদা হলেও কিন্তু আমাদের সন্তান আলাদা হয়নি। সে আমাদের দুজনের কাছেই থাকবে। কিন্তু একই ছাদের নিচে নয়। কারণ একই ছাদের নিচে থাকলে সান্নিধ্যর উপর বেশি প্রভাব পড়ত বলে আমাদের মনে হয়েছে। আর আমি আর রায়হান দু’জনই সাবলম্বী। তাই আমার মনে হয় সান্নিধ্যর জন্যও এটা ভালো হয়েছে।

বাংলাদেশ সময় : ১৩৩৬ ঘণ্টা, ১০ অক্টোবর, ২০১৭,
লেটেস্টবিডিনিউজ.কম/এ