ফের বিতর্কে ইমরান খান

নিজের অনমনীয় আচরণের জন্য আবারও সমালোচনার মুখে পড়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। কিরগিস্তানের বিশবেশে সাংহাই কো-অপারেশন অর্গানাইজেশনের (এসসিও) শীর্ষ সম্মেলনে সৌজন্যবোধ ও প্রটোকল ভেঙে ফের বিতর্কের জন্ম দিলেন এই নেতা।

গত বৃহস্পতিবার এসসিও সম্মেলন উপস্থিত হন-রাশিয়া,ভারত, চীন,পাকিস্তান, কিরগিস্তান, কাজাখস্তান, তাজিকিস্তান ও উজবেকিস্তানের রাষ্ট্রনেতারা। সম্মেলনের শুরুতে মঞ্চে রাষ্ট্রপ্রধানরা একের পর এক এসে নিজের আসন গ্রহণ করেন। প্রথমেই আসতে দেখা যায় ইমরান খানকে। তিনি রাজকীয় মেজাজে হেঁটে তার আসন গ্রহণ করেন। যখন তার নাম ঘোষণা করা হয়,তিনি উঠে দাঁড়িয়ে হাত নাড়িয়ে শুভেচ্ছা জানান। এই পর্যন্ত মোটামুটি ঠিকই ছিল।

এরপর অন্য রাষ্ট্রপ্রধানরা প্রবেশ করেন এবং উঠে দাঁড়িয়ে বাকিদের সংবর্ধনা জানান তারা। এই প্রটোকলের বন্ধনীতে নরেন্দ্র মোদি, শি জিনপিং, ভ্লাদিমির পুতিনসহ এসিসিও-র অন্তর্ভুক্ত সব দেশের রাষ্ট্রপ্রধানরা ছিলেন। তবে সেখানে ছিলেন না ইমরান খান। তিনি তখন পায়ের উপর পা তুলে দিব্যি সেসব দৃশ্য দেখে চলেছেন।

কূটনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে,ইমরানের এমন আচরণ প্রটোকল বিরুদ্ধ তো বটেই অসভ্যও। তবে এসব বিতর্ক নিয়ে সামান্য মাথা ঘামাচ্ছেন না ইমরান।

এর আগে গত সপ্তাহে অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কো-অপারেশন (ওআইসি) সম্মেলনে সৌদি আরবের বাদশা সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণের অভিযোগ উঠে ইমরানের বিরুদ্ধে। এরপরই দুদেশের দ্বিপাক্ষিক বৈঠক বাতিল করে সৌদি প্রশাসন।

লেটেস্টবিডিনিউজ/এসকেবি