খালেদাকে আবারও হাসপাতালে পাঠানো হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ফাইল ছবি

শারীরিক অবস্থা পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

মঙ্গলবার (৫ মার্চ) সচিবালয়ে দুপুরে বিএনপির প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠক শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসনের চিকিৎসার বিষয়ে হাইকোর্টের নির্দেশনা অনুযায়ী গঠিত মেডিকেল বোর্ড যে সিদ্ধান্ত দেবে সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে। শীঘ্রই পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য তাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে নেয়া হবে। তবে নির্দিষ্ট কোন কোন তারিখ বলা যাচ্ছে না।’

তিনি বলেন, ‘বিএনপির চেয়ারপারসনের চিকিৎসার প্রয়োজন, সেই দাবি নিয়ে তারা (বিএনপির প্রতিনিধিদল) এসেছিল। বিএনপি চেয়ারপারসন অন্তরীণ হওয়ার পর, আমরা তাকে চিকিৎসা থেকে শুরু করে যা যা ব্যবস্থা নেয়া দরকার সবই নিয়েছি। তাকে একজন মহিলা অ্যাটেন্ডেন্সও আমরা দিয়েছি। তাকে চিকিৎসার জন্য বঙ্গবন্ধু হাসপাতালে পাঠিয়েছিলাম। সেখান থেকে তাকে রিলিজ দেয়ার তাকে আবার নিয়ে আসা হয়েছে।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘কোর্টের মাধ্যমে তার চিকিৎসার জন্য একটি বোর্ড করে দেয়া হয়েছিল। নির্দেশনা অনুযায়ী এই বোর্ড তার চিকিৎসার সকল খোঁজ খবর রাখবেন এবং ব্যবস্থা নেবেন। বোর্ড গত ২৪ তারিখ কারাগারে ভিজিট করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেলের কিছু পরীক্ষা নিরীক্ষার কথা বলেছেন। বোর্ড আমাদের যেভাবে সিদ্ধান্ত দিয়েছে, সেভাবে ব্যবস্থা নিচ্ছি। প্রয়োজনে তাকে আবারও বঙ্গবন্ধু হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠিয়ে দেবো।’

তিনি আরও বলেন, ‘তারা (বিএনপি) বলেছিলেন তাকে ইউনাইটেড হাসপাতালে পাঠানোর জন্য। কিন্তু আমরা তাদের বলেছি বোর্ডের যে ডিরেকশন আমাদের কাছে এসেছে সেই অনুযায়ী আমরা ব্যবস্থা নেবো। বোর্ডের সিদ্ধান্ত আমরা বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে পাঠাব। আমরা শীঘ্রই পাঠাবো।’

খালেদাকে কবে মেডিকেলে পাঠানো হবে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘তিনি কতখানি অসুস্থ, তার কতখানি চিকিৎসা প্রয়োজন সেগুলো ডাক্তাররাই দেখবেন। একজন মহিলা ডাক্তার প্রতি একদিন পর পর তাকে দেখছেন। তারা যখনই প্রয়োজন মনে করবে তখনই তাকে পাঠানো হবে, কোন নির্দিষ্ট সময় বলা যাচ্ছে না।’

বিএনপি চেয়ারপারসনকে বিদেশে পাঠানো হবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘কোর্ট তার চিকিৎসায় বোর্ড গঠন করে দিয়েছে। বোর্ড যা বলবে আমরা সেটিই শুনব।’

এর আগে সচিবালয়ে বিএনপির একটি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠক করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

এ সময় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে বিএনপির প্রতিনিধি দলে ছিলেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান, ড.আব্দুল মইন খান ও আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী।