যৌন সম্পর্কে রাজি না হওয়ায় তরুণীকে পেটালো বিএনপি নেতা

শারীরিক সম্পর্কে বাধা দেয়ায় এক কলেজছাত্রীকে বেধড়ক পিটিয়ে রক্তাক্ত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে এক বিএনপি নেতার বিরুদ্ধে।সোমবার (৯ জুলাই) দুপুরে জেলার মোহনপুর উপজেলার ভাতুড়িয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত ওই বিএনপি নেতা হলো- মাহাবুব অর রশিদ। তিনি মোহনপুর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এবং বাকশিমইল ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান।

ওই ঘটনায় বুধবার (১১ জুলাই) রাতে মাহাবুব অর রশিদের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেছেন নির্যাতিতা ওই ছাত্রী। বৃহস্পতিবার (১২ জুলাই) সকালে ওই কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের আলামত পরীক্ষার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে পাঠিয়েছে পুলিশ।

ওই ছাত্রী মামলায় উল্লেখ করেন, উপজেলার ভাতুড়িয়া গ্রামের মৃত আনিসুর রহমানের ছেলে বিএনপি নেতা মাহাবুব অর রশিদের সঙ্গে ওই কলেজছাত্রীর তিন বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে। এ সম্পর্কের সূত্র ধরে তাদের মধ্যে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে বিএনপি নেতা মাহাবুব ওই ছাত্রীর সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক চালিয়ে যায়।

সোমবার (৯ জুলাই) দুপুর আড়াইটার সময় আবারও বিয়ে করার কথা বলে কলেজছাত্রীকে নিজ বাড়িতে ডেকে নেয় মাহাবুব। এ সময় শারীরিক সম্পর্ক করতে চাইলে ছাত্রী বিয়ের কথা বলেন। সেই সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করতে বাধা দেন ছাত্রী। এতে ওই ছাত্রীকে মারপিট করে বাড়ি থেকে বের করে দেয় মাহাবুব। এ ঘটনায় ওই ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগ এনে বিএনপি নেতা মাহাবুবের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

মোহনপুর থানার ওসি এসএম আবুল কাশেম আজাদ বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের আলামত পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আসামি মাহাবুবকে গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান শুরু হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়ঃ ১১১৬ ঘণ্টা, ১৩ জুলাই, ২০১৮
লেটেস্টবিডিনিউজ.কম/পিএস