দীর্ঘ ৫৮ বছর পর প্রিয় বাংলাদেশের নাগরিকত্ব পেলেন লুসি

অবশেষে প্রিয় বাংলাদেশের নাগরিকত্ব পেলেন ব্রিটিশ নাগরিক লুসি হেলেন ফ্রান্সিস হল্ট। সোমবার লুসির নাগরিকত্বের বিষয়টি নিশ্চিত করেন বরিশালের জেলা প্রশাসন। বাংলাদেশেকে ভালোবেসে দীর্ঘ ৫৮ বছর ধরে এ দেশের মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন লুসি। এরআগে গত ৮ ফেব্রুয়ারি বরিশালের বঙ্গবন্ধু উদ্যানের জনসভা মঞ্চে লুসির হাতে ভিসা ফি-মুক্ত ১৫ বছরের পাসপোর্ট তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তখন স্থায়ীভাবে লুসিকে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব দেওয়ার বিষয়টি বিবেচনারও আশ্বাস দেন প্রধানমন্ত্রী।

১৯৩০ সালের ১৬ ডিসেম্বর যুক্তরাজ্যের সেন্ট হ্যালেন্সে জন্মগ্রহণ করেন লুসি হল্টা। লুসির বাবা জন হল্ট ও মা ফ্রান্সিস হল্ট। ১৯৪৮ সালে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করেন লুসি। অক্সফোর্ড মিশনের একজন কর্মী হিসেবে ১৯৬০ সালে বাংলাদেশে আসেন তিনি। নিয়োজিত হন মানবতার সেবায়। মুক্তিযুদ্ধের সময় যুদ্ধাহতদের সেবা করেছেন জীবনের মায়া ত্যাগ করে। দেশ স্বাধীনের পরও তিনি বাংলাদেশ ছেড়ে যাননি। মায়ার বন্ধনে থেকে গেছেন।

বরিশাল অক্সফোর্ড মিশন চার্চে বসবাস করে দুস্থ শিশুদের মানসিক বিকাশ ও ইংরেজি শিক্ষা দেওয়ার পাশাপাশি শিশুদের কল্যাণ ও সেবার জন্য তহবিলও সংগ্রহ করছেন। লুসির ইচ্ছা মৃত্যুর পর যেন তাকে বরিশালের মাটিতেই সমাধিস্থ করা। এজন্য স্থান নির্ধারণও করেছেন লুসি। নাগরিকত্বের লাভের পর লুসির ইচ্ছা পূরণে আর কোনো বাধা রইলো না।

বাংলাদেশ সময়: ১৭০০ ঘণ্টা, ১২ ফেব্রুয়ারি , ২০১৮

লেটেস্টবিডিনিউজ.কম/এস পি