‘আতঙ্কিত’ হয়ে স্বামীর গোপনাঙ্গ কেটে দিলেন স্ত্রী

নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার মশিন্দা ইউনিয়নের মাঝপাড়া গ্রামে শ্বশুড় বাড়িতে বেড়াতে এসে প্রাণ গেল কাবিল বিশ্বাস (২২) নামে এক ব্যক্তির। এ ঘটনায় স্ত্রী রুবি খাতুনকে (১৮) আটক করেছে পুলিশ।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, চাটমোহর উপজেলার ধানকুরিয়া চরপাড়া গ্রামের নওশের বিশ্বাসের ছেলে ভাঙরী ব্যবসায়ী কাবিল বিশ্বাসের সঙ্গে চার মাস আগে আদালতে হলফনামার মাধ্যমে রুবি খাতুনের বিয়ে হয়। রুবি গুরুদাসপুর উপজেলার মশিন্দা মাঝপাড়া গ্রামের মৃত মকছেদ আলীর মেয়ে। বিয়ের পর থেকে তিনি স্বামীর দ্বারা যৌন নির্যাতনের শিকার হন।

এক পর্যায়ে শনিবার ভোররাতে স্ত্রী ধারালো হাসুয়া দ্বারা স্বামী কাবিলের অন্ডকোষ কেটে দেয়। ফলে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হওয়ায় কাবিল বিশ্বাস ঘটনাস্থলেই মারা যায়।

বেলা ১২টার দিকে ঘটনাস্থলে এসে গুরুদাসপুর থানা পুলিশ রুবিকে আটক করে। এ সময় কাবিলের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়।

গুরুদাসপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সেলিম রেজা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। রুবির বরাত দিয়ে তিনি জানান, বিয়ের পর থেকে তাকে দিনরাত যৌন নির্যাতন করে আসছিল তার স্বামী কাবিল বিশ্বাস। স্বামীকে অনেক নিষেধ করার পরও যৌন নির্যাতন করত। অবশেষে আতঙ্কিত হয়ে ধারালো অস্ত্র দ্বারা স্বামীর অন্ডকোষ কেটে দেয় রুবি।

ওসি আরও জানান, ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধারের পাশাপাশি ভিকটিমকে আটক করা হয়েছে। রুবি ঘটনার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

লেটেস্টবিডিনিউজ.কম/কেএস