খালেদার সেই ডালিয়া এখন……

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এতে করে সারাদেশে দলের নেতাকর্মীরা হতাশ। হতাশ ডালিয়া রহমানও। তিনি সাহসী ছাত্রী, নারী কিংবা নেত্রী। খালেদা জিয়া সবসময় তার সাহসের প্রশংসা করেন। খালেদা যতবার আদালতের পথে গুলশানের বাসা থেকে রওয়ানা দেন, ততবার তার গাড়ির সামনে স্কুটি নিয়ে যুক্ত হন বহরের একমাত্র নারী বাইকার ডালিয়া।
গায়ে শার্ট, চোখে চশমা, জিন্সের স্কিনটাইট প্যান্ট। এই আধুনিক পোশাকে স্কুটির ওপর চেপে তিনি ছুটে চলেন খালেদার গাড়ির সামনে।

বরাবরের মতো আদালত থেকে ফেরার পথে খালেদার গাড়ির সামনে থাকার কথা তার। কিন্তু এবার ঘটনা অন্যরকম। দুর্নীতি মামলার রায়ে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা গেলেন জেলে। ডালিয়া ফিরলেন একা। তার পেছনে নেই সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপি চেয়ারপাসন খালেদা জিয়া।

আদালতে যাওয়ার পথে তার ‘মোটরসাইকেল প্রটোকল রাইড’ দৃষ্টি কাড়ে সবার। গাড়ি বহরের ঠিক সামনে একাই থাকেন ডালিয়া। লুকিং গ্লাসে পেছনে দেখেন নেত্রীকে।

সামনে থাকার কারণে নিরাপত্তা বাহিনীর নিয়ম-কানুন মোকাবিলা করতে হয় তাকে। আর বহর এমনভাবে চলে যেন ডালিকে অনুসরণ করছে। গুলশান থেকে মগবাজারের পথে পথে খালেদার বহরে যোগ দিতে যেখানে বিএনপি নেতাকর্মীদের বাধার মুখে পড়তে হয়, সেখানে ডালিয়া অনেকটা বাধাহীন।

তবে বহরের সামনে বাইক নিয়ে যেতে পুলিশের সঙ্গে বচসাও হয়। পুলিশকে ডালিয়া বোঝান, আমি শান্তিপূর্ণভাবে বহরের সঙ্গে আছি।

ডালিয়া রহমান জানান, যতবার খালেদা জিয়া আদালতের পথে বের হয়েছেন, ততবার তিনি সঙ্গী হন। কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, সিটি করপোরেশন নির্বাচনের সময় নির্বাচনী প্রচারণা চলাকালে খালেদার বহরে হামলা হওয়ার পর থেকে পণ করি, যতবার খালেদা বের হবেন তিনিও স্কুটি নিয়ে সঙ্গী হবেন। সব বারই ঠিক ছিল। বহরের সামনে যেতেন। এরপর ফিরতেনও একইভাবে। ব্যতিক্রম ৮ ফেব্রুয়ারি। ডালিয়াকে ফিরতে হলো খালেদা ছাড়াই। একা। যাওয়ার পথে তিনি জানান, রায় বিপক্ষে গেলে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চালিয়ে যাবেন।

ডালিয়া কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় বিষয়ক সহ-সম্পাদক। আইনে পড়াশোনা শেষ করেছেন সদ্য। এখন প্রাকটিস করছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০৫ ঘণ্টা, ০৯ ফেব্রুয়ারি , ২০১৮

লেটেস্টবিডিনিউজ.কম/এস পি

SHARE