শুরুতেই অনুরোধ আসে ‘পোশাক খোলো’!

বন্ধুদের পরামর্শে বেশ উত্তেজিত হয়েই ডেটিং অ্যাপ ডাউনলোড করেছিলেন ভারতের উত্তরবঙ্গের এক তরুণী। সেখানেই পরিচয় হয় এক তরুণের সঙ্গে। কথাবার্তা থেকে ভালো লাগা, সেখান থেকে নম্বর বিনিময়। হোয়াটসঅ্যাপে কিছু দিন কথা চলতে না-চলতেই ভিডিও চ্যাট করার আবদার জানায় ওই তরুণ। ভিডিও চ্যাট শুরু হতেই অনুরোধ আসে ‘পোশাক খোলো’! থতমত তরুণী সেদিনের মতো বিষয়টি এড়িয়ে গেলেও ‘আবদার’ থামেনি। সম্প্রতি অনলাইনের ডেটিং অ্যাপ ব্যবহারকারীদের ওপর পর্যবেক্ষণ করে নানা চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছেন সাইবার ক্রাইম বিশেষজ্ঞ ও মনস্তাত্ত্বিকরা।

ভারতীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বারাসাতের ওই তরুণীকে হোয়াটস্যাপেও নগ্ন ছবি পাঠিয়ে পাল্টা ছবি শেয়ার করার দাবি করেন ওই তরুণ। পরিস্থিতি সহ্যের সীমা ছাড়ালে ডেটিং অ্যাপ আর হোয়াটসঅ্যাপে ওই তরুণকে ব্লক করে দেন তরুণী। কিন্তু তার মাশুল গুণতে হয় নিজেকেও। পরিবার বা বন্ধুদের নিজের অভিজ্ঞতার কথা মুখ ফুটে বলতে না পারায় অবসাদের শিকার হতে হয় তাকে।
বারাসাতের ওই তরুণীর চিকিৎসক, মনোরোগ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ‘পোস্ট-ট্রম্যাটিক ডিপ্রেশন এমন পর্যায়ে চলে যাচ্ছে অনেকের কেবল কাউন্সেলিংয়ে কাজ হচ্ছে না। দিতে হচ্ছে ওষুধও।’

অন্যদিকে বিবাহিত জীবনের অশান্তি থেকে মুক্তি পেতে জনপ্রিয় আরেকটি ডেটিং অ্যাপ ডাউনলোড করেছিলেন এক নারী তথ্যপ্রযুক্তি কর্মী। সেখানে পরিচয় হয় কম বয়সী এক যুবকের সঙ্গে। সম্পর্ক গাঢ় হলে ৩৫ বছর বয়সী ওই নারীর কাছ থেকে নানা উপায়ে বেশ কিছু টাকা হাতিয়ে নেন যুবক।

সময় যত এগিয়ে যায়, চাহিদাও বাড়তে থাকে যুবকের। পরিস্থিতি বুঝে ওই নারী সরে আসতে চাইলে শারীরিক সম্পর্কের কথা স্বামীকে জানিয়ে দেওয়ার ‘ব্ল্যাকমেইলিং’ এর হুমকি আসতে থাকে। এককালীন বেশ কিছু টাকা দিয়ে সেই যুবকের হাত থেকে নিস্তার মিলেছিল ওই নারীর।
টিন্ডার, ট্রুলি ম্যাডলি, হ্যাপেন, ওকেকিউপিড, হিঞ্জ-এর মতো ডেটিং অ্যাপ ক্রমেই জনপ্রিয় হচ্ছে সমাজে। জীবনসঙ্গী খুঁজে পেতে, চ্যাটে সময় কাটাতে বা শুধুই শারীরিক সুখ পেতে এ সব অ্যাপে হাজিরা দিচ্ছেন অনেকেই।

গত কয়েক মাসে ডেটিং অ্যাপে প্রতারিত হওয়ার বেশ কিছু ঘটনা পর্যবেক্ষণে উঠে এসেছে। মূলত দুধরনের নারীরা বেশি করে প্রতারিত অথবা লাঞ্ছিত হচ্ছেন। প্রথম, যাদের বয়স কম। ঝোঁকের মাথায় ছেলেটির সম্পর্কে বিস্তারিত না-জেনেই জড়িয়ে পড়ছেন এবং প্রতারিত হচ্ছেন।
আর দ্বিতীয়,একাকিত্ব থেকে বেরোতে ডেটিং অ্যাপের দ্বারস্থ হওয়া মধ্যবয়সী নারীরা। শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়ে প্রতারণা থেকে শুরু করে আর্থিক ঠগবাজিরও শিকার হচ্ছেন তারা।

সাইবার বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, সঙ্গী সম্পর্কে খুব অল্প জানা বড়সড় বিপদের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে নারীদের কাছে। এমন পরিস্থিতিতে ‘ডেটিং অ্যাপ’ ব্যবহারকারীদের বাড়তি সচেতন হতে বলছেন তারা। অ্যাপে পরিচয় হওয়া কোনো পুরুষের সঙ্গে ডেটে যাওয়া বা শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ার আগে তার সম্পর্কে খোঁজ নেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

লেটেস্টবিডিনিউজ.কম/বিএনকে