নির্বাচনী প্রচারে ‘কাপুরুষের মতো’ হামলা করা হয়েছে: তাবিথ

Tabith Mohammed Awal

ঢাকা উত্তর City Corporation elections বিএনপির মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল অভিযোগ করেছেন যে, নির্বাচনী প্রচারে ‘কাপুরুষের মতো’ হামলা করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার রাজধানীর গাবতলী এলাকায় নির্বাচনী প্রচার চালানোর সময় তাবিথ আউয়ালের ওপর এক দফা হামলা হয়।

হামলায় তিনি আহত হন। পরে তিনি প্রতিক্রিয়া জানান। তাবিথ আউয়াল বলেন, ‘যতই হামলা হোক, আমাদের দমিয়ে রাখা যাবে না। সুশৃঙ্খলভাবে নির্বাচনী প্রচার চালিয়ে যাব।’

প্রত্যক্ষদর্শীদের ভাষ্য, আজ বেলা ১১টার দিকে তাবিথ গাবতলী বাসস্ট্যান্ডের পেছনে বাজারপাড়া এলাকায় নির্বাচনী প্রচার শুরু করেন। এলাকাটি উত্তর সিটি করপোরেশনের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের মধ্যে পড়েছে। গণসংযোগ শুরুর পরপরই লাঠিসোঁটা নিয়ে তাঁদের পেছন থেকে হামলা করে একদল ব্যক্তি। তারা তাবিথ ও তাঁর সঙ্গীদের ওপর ঢিল ছোড়ে। কয়েকটি ঢিল তাবিথের গায়ে ও মাথায় লাগে। এতে তাবিথসহ তাঁর সঙ্গে থাকা ১০ থেকে ১২ জন কর্মী-সমর্থক আহত হন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ ছিল। একপর্যায়ে তারা হামলাকারী ও তাবিথের কর্মী-সমর্থকদের মাঝে দাঁড়িয়ে যায়। তারা হামলাকারীদের ঠেকানোর চেষ্টা করে। হামলার পরপরই রাস্তায় দাঁড়িয়ে তাবিথ অভিযোগ করেন, ৯ নম্বর ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগ-সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী মুজিব সারোয়ারের (ঠেলাগাড়ি প্রতীক) নেতৃত্বে এই হামলা হয়।

তাবিথের বক্তব্য শেষ হতে না হতেই আবার ‘জয় বাংলা’ স্লোগান দিয়ে তাঁদের ওপর হামলা করে প্রায় ২৫ থেকে ৩০ জন ব্যক্তি। ঘটনাস্থলে থাকা বিএনপির কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক শহীদউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘আমাদের ওপর দুই দফা হামলা হয়েছে। আমাদের প্রার্থীসহ ১০ থেকে ১২ জন আহত হয়েছেন।’

হামলার পর ওই এলাকা ত্যাগ করে ১১ নম্বর ওয়ার্ডের দিকে চলে যান তাবিথ ও তাঁর সঙ্গে থাকা কর্মী-সমর্থকেরা। তাবিথের সঙ্গে প্রচারে আছেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য হাবিবুর রহমান, সহ দপ্তর সম্পাদক বেলাল আহমেদ, নির্বাহী কমিটির সদস্য নাজিমুদ্দিন আলম প্রমুখ।