দুঃখে-কষ্টে যে পথ বেছে নিলেন নাসরিন

রুপালি পদার্য় প্রায় আট শতাধিক ছবিতে অভিনয় করেছেন একসময়ের সাড়া জাগানো অভিনেত্রী নাসরিন। মান্না, শাকিল খানের সঙ্গে পাশ্বর্ নায়িকা হিসেবে চল্লিশটির বেশি সিনেমায় কাজ করেছেন তিনি। ২৬ বছরের চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারের পরও অনিশ্চয়তার ভুগতেছেন এ অভিনেত্রী। হঠাৎ কোথায় যেন হারিয়ে গেলেন।

অভিনয়ে ফিরছেন না কেন? এমন প্রশ্নের জবাবে নাসরিন আঙুল দিয়ে দেখাতে চাইলেন চলচ্চিত্রের করুণ চিত্রটা।

কাজ না থাকলেও নায়ক-নায়িকাদের দিন চলে যাচ্ছে স্টেজে নেচে, ফিতা কেটে, নানা রকম ব্যবসা-বাণিজ্যে। কিন্তু দরিদ্র শিল্পীরা যারা অতিরিক্ত শিল্পী হয়ে রোজ মজুরিতে কাজ করতেন তাদের অবস্থা নাজুক।

নাসরিন জানান, আজকাল স্টেজ শো করেই জীবন যাপন করতে হচ্ছে। সংসার নিয়ে টিকে আছেন কোনোমতে। একপ্রকার দুঃখ কষ্টেই এ পথ বেছে নিয়েছেন সাড়া জাগানো এ অভিনেত্রী।

তবে তার চেয়েও অনেক দরিদ্র শিল্পী চলচ্চিত্রপাড়ায় ঘুরে বেড়াচ্ছেন বলে জানান। তাদের কাজ দরকার, সাহায্য দরকার। এদের কেউ চেনে না। সারা জীবন সিনেমা সিনেমা করে কাটিয়েছে। অন্য কিছু করার আগ্রহও নেই, সুযোগও নেই অনেকের।

নাসরিন বলেন, ‘এত পেশা থাকতে সিনেমায় মানুষ কেন আসে? সম্মানের জন্য। লোকে শিল্পী বলবে। সম্মান করবে। সেই সম্মান নিয়ে রাস্তায় রিকাশা চালাবে, অন্যের বাড়িতে বুয়ার কাজ করবে এটা হয়তো অনেকে মানতে পারে না। তাই বুক বেঁধে থাকে কেউ সিনেমা করলে তাকে ডাকবে। কিন্তু সিনেমা কই!

আমিও অনেক দিন অপেক্ষায় থেকেছি। সিনেমায় ডাক আসে না। পরিচিতিটা কাজে লাগিয়ে স্টেজ শো করে জীবন চালাচ্ছি।’

সিনেমার এই করুণ দশার জন্য নাসরিন দায়ী করেন শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের জুটি ভেঙে যাওয়াকে। তার মতে, এই জুটিকে দেখতে মানুষ হলে আসতো। এখন আর এই জুটি নেই, দর্শকও হলে আসে না। সেই সঙ্গে তিনি দাবি করেন, শাকিব-অপুর পাশাপাশি দর্শক কাবিলার সঙ্গে তার জুটিকেও মিস করেন।