আরব আমিরাতে প্রথম মাঙ্কিপক্স শনাক্ত

আরব আমিরাতে প্রথম মাঙ্কিপক্স শনাক্ত
সংগৃহীত ছবি

বিশ্বব্যাপী মাঙ্কিপক্স নতুন আতঙ্ক। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) তথ্যমতে, ১৮টি দেশে মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সংযুক্ত আরব আমিরাতে মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত প্রথম ব্যক্তিকে শনাক্ত করা হয়েছে। দুবাইভিত্তিক সংবাদমাধ্যম খালিজ টাইমস এ তথ্য জানায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, আরব আমিরাতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আক্রান্ত নারীর বয়স ২৯ বছর। তিনি আফ্রিকার পশ্চিমাঞ্চল থেকে এসেছেন। তাকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

মন্ত্রণালয়ের পক্ষ নাগরিকদের আশ্বস্ত করে বলা হয়েছে, সংক্রমণ প্রতিরোধে সব ধরনের নিরপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

বিভিন্ন দেশে মাঙ্কিপক্স ছড়িয়ে পড়ায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বিষয়টি ‘নিবিড়ভাবে’ পর্যবেক্ষণ করছিল উল্লেখ করে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে আরও বলা হয়, তাদের পূর্ব প্রস্তুতি জোরালো থাকায় আমিরাতে মাঙ্কিপক্স শনাক্ত সম্ভব হয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের বার্তায় বলা হয়, ‘সন্দেহভাজনদের শনাক্তের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। মহামারি প্রতিরোধে কারিগরি উপদেষ্টা দল আগেভাগেই রোগ শনাক্তকরণ, রোগীর যথাযথ চিকিৎসা ও সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেয়ার জন্য দিকনির্দেশনা দিয়েছে।’

মাঙ্কিপক্স : মাঙ্কিপক্স এক ধরণের ভাইরাল ইনফেকশন। যা প্রাণী থেকে মানুষের শরীরে ছড়ায়। গ্রীষ্মমণ্ডলীয় রেইনফরেস্টের কাছাকাছি এলাকায় এই ভাইরাসের সংক্রমণ বেশি ঘটে।

নাম ‘মাঙ্কিপক্স’ হলেও একাধিক বন্যপ্রাণীর মাধ্যমে ছড়াতে পারে এই ভাইরাস। এই ভাইরাস সবচেয়ে বেশি ছড়ায় ইঁদুরের মাধ্যমে।

মাঙ্কিপক্স ভাইরাস অর্থোপক্স ভাইরাস পরিবারের সদস্য। এটি দুটি স্বতন্ত্র জেনেটিক স্ট্রেন বা আছে। মধ্য আফ্রিকান (কঙ্গো বেসিন) ক্লেড ও পশ্চিম আফ্রিকান ক্লেড।

কঙ্গো বেসিন ক্লেড আরও সহজে ছড়িয়ে পড়ে। এমনকি এর লক্ষণও বেশি গুরুতর। যুক্তরাজ্য ও কানাডায় মাঙ্কিপক্সের সাম্প্রতিক ঘটনাগুলোর বেশিরভাগই যৌন সম্পর্কযুক্ত বলে জানা গেছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যমতে, এরই মধ্যে ১৮টি দেশে মাঙ্কিপক্স শনাক্ত হয়েছে। ভাইরাসটি খুবই সংক্রামক বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। নাক, মুখ, চোখের পাশাপাশি আক্রান্তের পোশাক থেকেও সংক্রমিত হতে পারে এই ভাইরাস।

সংবাদ সূত্রঃ খালিজ টাইমস