‘বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে শারীরিক সম্পর্ক করেছিল হৃত্বিক’

‘মি টু’ ঝড় বইছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। একের পর এক অভিনেত্রী-নায়িকা শ্লীলতাহানি ও যৌন হেনস্তার অভিযোগ করছেন। অভিযোগের তালিকায় উঠে এসেছে একাধিক পরিচালক, প্রযোজক, অভিনেতার নাম।

এবার সেই তালিকায় যোগ হলো হৃত্বিক রোশনের নাম। পরিচালক বিকাশ বহেলের পর এবার হৃত্বিকের বিরুদ্ধে মুখ খুললেন ‘কুইন’ কঙ্গনা।

কঙ্গনা বলেন, ‘বিকাশ বহেলের মতো অনেকেই ইন্ড্রাস্ট্রির আশপাশে রয়েছেন। তাদের খুঁজে বের করে মুখোশ খুলে দিতে হবে। নারীদের জন্য রূপালি জগতকে আরও নিরাপদ তৈরি করতে হবে। কোনও নারীর সঙ্গে যাতে কেউ অশালীন ব্যবহার না করেন সেদিকে নজর দিতে হবে আমাদের।’

তিনি আরও জানান, বলিউডে এমন অনেক মানুষ রয়েছেন, যারা বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে কিংবা কাজ পাইয়ে দেওয়ার নাম করে অভিনেত্রীদের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি করেন। তাদের ব্যবহার করেন। এবার সেই সমস্ত মানুষদেরও টেনে বের করতে হবে বলে খোঁচা দেন কঙ্গনা।

আর এরপরই হৃত্বিক রোশনের নাম নেন ‘মণিকর্ণিকা’-এর লক্ষ্মীবাই। হৃত্বিক তার সঙ্গে যা করেছেন, তাতে তার শাস্তি পাওয়া উচিত বলেও দাবি করেন কঙ্গনা।

বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে হৃত্বিক তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করেছে, আগেও এ অভিযোগে সরব হয়েছিলেন কঙ্গনা রনৌত। তার নগ্ন ছবি ঋত্বিক প্রকাশ্যে আনেন বলেও অভিযোগ অভিনেত্রীর।

এ অভিযোগ সামনে আসার পরই বলিউডে নতুন করে জল্পনা সৃষ্টি হয়েছে। তবে কঙ্গনার অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছেন রাকেশ রোশন পুত্র। কঙ্গনা মিথ্যা অভিযোগ করেছেন বলে তোপও দাগেন তিনি। ‘কুইন’কে আইনি নোটিশও পাঠিয়েছেন হৃত্বিক। ‘মি টু’ঝড়ের মাঝে কঙ্গনার এ অভিযোগে নতুন করে আবারও বলিউডে কানাঘুষো শুরু হয়েছে।