আইপিএলের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় ধস:৮ রানে ৭ উইকেট

ক্রিকেটকে বলা হয় গৌরবময় অনিশ্চয়তার খেলা। তবে মাঝেমধ্যে এই অনিশ্চয়তা এমন পর্যায়ে পৌঁছে যায়, যেটা বিশ্বাস করাই কঠিন হয়ে পড়ে। সোমবার দিল্লি ক্যাপিটেলস আর কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের মধ্যকার ম্যাচে যেমনটা ঘটলো।

কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের ১৬৬ রানের জবাবে ১৭তম ওভারের মাঝামাঝি পর্যন্ত কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের রান ছিল ৩ উইকেটে ১৪৪। উইকেটে ছিলেন দুই সেট ব্যাটসম্যান রিশাভ পান্ত (৩৯) আর কলিন ইনগ্রাম (৩৭)। এমন ম্যাচও দিল্লি হেরে যেতে পারে, কে ভেবেছিল!

বাস্তবে সেটাই ঘটলো। মোহাম্মদ শামির ওভারের তৃতীয় বলে লং অন দিয়ে ছক্কা মেরেছিলেন পান্ত। পরের বলেই শামি তার স্ট্যাম্প উপড়ে দেন। তারপরই ঘটতে থাকে নাটকীয় সব ঘটনা। পঞ্চম বলে ক্রিস মরিস রান আউট হয়ে যান। দিল্লির স্কোর দাঁড়ায় ৫ উইকেটে ১৪৪ রান।

পনেরো বল পর এই দিল্লি অলআউট ১৫২ রানে, ইনিংসের ৪ বল বাকি থাকতে। দুই ওভার মিলিয়ে স্যাম কুরান তুলে নেন দুর্দান্ত এক হ্যাটট্রিক।

১৮তম ওভারের শেষ বলে হার্শাল প্যাটেলকে উইকেটের পেছনে ক্যাচ বানান ইংলিশ এই পেসার। ২০তম ওভারের প্রথম দুই বলে কাগিসো রাবাদা আর সন্দীপ লামিচানেকে। ততক্ষণে বিজয় উল্লাস শুরু হয়ে গেছে পাঞ্জাবের, হ্যাটট্রিক নিয়ে ভাবার সময় কই!

সবমিলিয়ে কুরান নেন ৪ উইকেট। শেষ ৮ রান তুলতেই দিল্লি হারায় ৭টি উইকেট। আর আইপিএলের ইতিহাসে শেষ ৭ উইকেটে ঘটে সবচেয়ে বড় ধসের ঘটনা।