ব্রাজিলিয়ানের হ্যাটট্রিকে সিটির ইতিহাস

চলতি মৌসুমের সবচেয়ে পরিচিত দৃশ্য- ম্যানচেস্টার সিটির গোলবন্যা। বুধবার উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের ম্যাচেও গোল উৎসবের ধারা অব্যাহত রাখল পেপ গার্দিওলার দল। ঘরের মাঠ ইতিহাদ স্টেডিয়ামে এবার সিটিজেনরা গোলবন্যায় ভাসিয়েছে ইউক্রেনের ক্লাব শাখতার দানেৎস্ককে। গ্যাব্রিয়েল জেসুসের হ্যাটট্রিকের সুবাদে সিটি জিতেছে ৬-০ গোলে।

শাখতার দানেৎস্কর রক্ষণদুর্গে সিটির ঝড় শুরু হয়েছিল ১৩ মিনিটে; শেষ হয়েছে দ্বিতীয়ার্ধের যোগ করা সময়ের দ্বিতীয় মিনিটে। ডেভিড সিলভা ও জেসুসের গোলে প্রথমার্ধে ২-০ ব্যবধানে লিড নেয় ম্যানচেস্টার সিটি। বিরতির পর রীতিমতো অগ্নিমূর্তি ধারণ করেন গার্দিওলার শিষ্যরা; করেন আরো চারটি গোল। জালের ঠিকানা খুঁজে নিলেন রহিম স্টার্লিং এবং রিয়াদ মাহরেজ।

সিটির গোল উৎসব শেষ হয়েছে জেসুসের হ্যাটট্রিক গোলে। এর আগের দুটি গোল অবশ্য পেনাল্টি থেকে করেছিলেন ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার। জেসুসের প্রথম গোলটা হয়েছে রেফারির হাস্যকর ভুলে। ২৩ মিনিটে বল নিয়ে ছুটতে গিয়ে শাখতারের ডি-বক্সে একা-একাই উষ্টা খেয়ে পড়ে যান স্টার্লিং। পেনাল্টির বাঁশি বাজান ম্যাচকর্তা।

চ্যাম্পিয়নস লিগের ইতিহাসে এটাই সিটির সবচেয়ে বড় জয়। এমন একটা জয়ের পরও কাগজে-কলমের হিসেবে নক আউট পর্বের টিকিটের জন্য অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে গার্দিওলার দলকে। চার ম্যাচে নয় পয়েন্ট নিয়ে ‘এফ’ গ্রুপের শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে সিটি। ছয় পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছে অলিম্পিক লিওঁ। তিন পয়েন্ট নিয়ে কিছুটা হলেও আশা বেঁচে আছে হফেনহেইমের।

শেষ দুটি দল অন্য ম্যাচে উপহার দিয়েছে থ্রিলার। নাটকীয় ম্যাচটাতে ২-২ গোলে ড্র করেছে হফেনহেইম-লিওঁ। ২৮ মিনিটে দুই গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিক লিওঁ। ৫১ মিনিটে আবার দশ জনের দলে নেমে আসে হফেনহেইম। তবু এর ফায়দাটা নিতে পারেনি ফ্রেঞ্চ ক্লাবটি। উল্টো দ্বিতীয়ার্ধে দুই গোল হজম করে নিশ্চিত জয়টা হাতছাড়া করে লিওঁ।

একনজরে ফলাফল

সিএসকেএ মস্কো ১-২ এএস রোমা
বায়ার্ন মিউনিখ ২-০ এএইকে অ্যাথেন্স
ম্যানচেস্টার সিটি ৬-০ শাখতার দানেৎস্ক
ভ্যালেন্সিয়া ৩-১ ইয়ং বয়েজ

বেনফিকা ১-১ আয়াক্স
ভিক্টোরিয়া প্লাজেন ০-৫ রিয়াল মাদ্রিদ
জুভেন্টাস ১-২ ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড
অলিম্পিকি লিওঁ ২-২ হফেনহেইম

লেটেস্টবিডিনিউজ.কম/বিএনকে