মানব উন্নয়ন সূচকে ভারত-পাকিস্তানের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ

বিশ্ব ব্যাংকের প্রকাশিত মানবসম্পদ সূচক বা হিউম্যান ক্যাপিটাল ইনডেক্সের রিপোর্টে প্রতিবেশী দেশ ভারত ও পাকিস্তানের চেয়ে ভালো করেছে বাংলাদেশ। তবে দক্ষিণ এশিয়ায় সবচেয়ে এগিয়ে আছে শ্রীলংকা, এরপর নেপাল।

বিশ্বব্যাংকের ১৫৭টি সদস্য রাষ্ট্রের ওপর জরিপ করে তালিকাটি প্রকাশ করা হয়। জরিপকালে দেশগুলোর মানুষের, স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও বেঁচে থাকার অন্য অনুষঙ্গগুলো বিবেচনা করা হয়েছে। ইন্দোনেশিয়ার বালিতে চলমান বিশ্বব্যাংক-আইএমএফ বার্ষিক সম্মেলনে এ প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, মানবসম্পদ সূচক সবচেয়ে পিছনে পড়ে রয়েছে আফ্রিকার দেশগুলো। তবে কর্মক্ষেত্রে তরুণদের সম্ভাবনা তৈরিতে এশিয়ার দেশগুলো ভালো করছে। তালিকার শীর্ষে থাকা ৩টি দেশ হলো, সিঙ্গাপুর, দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপান। অপরদিকে সবচেয়ে খারাপ অবস্থায় রয়েছে, আফ্রিকার দেশ, শাদ, দক্ষিণ সুদান ও নাইজার।

বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদন অনুসারে, বাংলাদেশে জন্ম হওয়া একটি শিশু বড় হয়ে কর্মক্ষেত্রে উৎপাদনশীল হতে পারে এই সম্ভাবনা ৪৮ শতাংশ। ভারতের ক্ষেত্রে এই হার ৪৪ শতাংশ ও পাকিস্তানে ৩৯ শতাংশ। তবে শ্রীলঙ্কা ও নেপালে এই হার যথাক্রমে ৫৮ শতাংশ ও ৪৯ শতাংশ।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, বাংলাদেশে ১০০ জনের মধ্যে ৯৭ জন শিশু ৫ বছর পর্যন্ত বেঁচে থাকে। ভারত ও পাকিস্তান এই সংখ্যা ৯৬ জন ও ৯৩ জন। অপরদিকে শ্রীলঙ্কার ক্ষেত্রে এই সংখ্যা ৯৯ জন।

মানবসম্পদ সূচকে বাংলাদেশে নারীরা পুরুষের চেয়ে এগিয়ে আছে বলেও প্রতিবেদনটিতে বলা হয়।

প্রতিবেদন প্রকাশের পর বিশ্ব ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম আশা প্রকাশ করেন, এই তালিকার মাধ্যমে বিভিন্ন দেশের সরকার প্রয়োজনীয় খাতে বরাদ্দ বাড়াতে উৎসাহী হবে।

লেটেস্টবিডিনিউজ.কম/কেএস