সাকিবের জন্মদিনের উপহার কেড়ে নিলো রাসেল

সাকিব আল হাসানের ৩২তম জন্মদিন। তাই আগে-ভাগেই ফেসবুক এবং টুইটারে পোস্ট করে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ তাকে জানিয়েছিল জন্মদিনের শুভেচ্ছা। একই সঙ্গে প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছিল, জন্মদিনে সাকিববে জয় উপহার দেয়ার।

কিন্তু কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে ১৮২ রানের বিশাল লক্ষ্য ছুড়ে দিয়েও স্বাগতিক কলকাতা নাইট রাইডার্সকে হারাতে পারলো না সানরাইজার্স হায়দরাবাদ।

উল্টো সাকিব আল হাসানকেই ছক্কা মেরে জয়টা কেড়ে নিলেন নাইট ব্যাটসম্যান শুভমান গিল। ৬ উইকেটে জয় পেলো কেকেআর। যদিও এই জয়ের পেছনে তাণ্ডব চালিয়েছিলেন আন্দ্রে রাসেল। ১৯ বলে ৪৯ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি।

শেষ ওভারে প্রয়োজন ছিল ১৩ রানের। এমন কঠিন পরিস্থিতিতে সাকিবের হাতেই বল তুলে দেন সানরাইজার্স অধিনায়ক ভুবনেশ্বর কুমার। প্রথম বলটিই তিনি করলেন ওয়াইড। পরের বলে আন্দ্রে রাসেলকে দিলেন ১ রান। স্ট্রাইকে আসেন শুভমান গিল। ওভারের দ্বিতীয় বলেই ছক্কা হাঁকিয়ে দিলেন গিল।

পরের বলে কোনো রান দিলেন না। কিন্তু ওভারের চতুর্থ বলটি আবারও শূন্যে ভাসিয়ে দিলেন শুভমান। একেবারে সাইটস্ক্রিনের সামনে গিয়ে আছড়ে পড়লো সেই বল। ২ বল হাতে রেখেই ৬ উইকেটের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়লো কেকেআর। জন্মদিনে পরাজয়ের হতাশা নিয়ে মাঠ ছাড়তে হলো সাকিব এবং তার সতীর্থদের।

নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে জাতীয় দলে ফেরার লড়াইয়ে থাকা অজি ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার ৮৫ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলেন। তার দল হায়দরাবাদও পায় ১৮১ রানের বড় সংগ্রহ। ম্যাচ হাতেই ছিল হায়দরাবাদের। কিন্তু আন্দে রাসেলের এক ঝড়ে সব তছনছ হয়ে যায়। তিনি ১৯ বলে ৪৯ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলে জিতিয়ে ফেরেন কলকাতাকে।

আন্দে রাসেল ওই ইনিংস খেলার পথে ছক্কা মারেন চারটি। এছাড়া চারের চারও মারেন চারটি। তার আগে নিতিশ রানা করেন আইপিএলে তার দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৬৮ রান। এছাড়া রবিন উত্থাপ্পা ৩৫ এবং শুভমন গিল খেলেন ১৮ রানের হার না মানা ইনিংস।

জয়ের জন্য শেষ চার ওভারে ৫৮ রান দরকার ছিল কলকাতার। ভুবনেশ্বর কুমার বল করতে এসে দেন মাত্র ৬ রান। নেন এক উইকেট। পরের ওভারে সিদ্ধার্ত কাউল দেন ১৯ রান। দুই ওভারে ৩৪ রান দরকার ছিল নাইটদের। দলের ১৯তম ওভারে অধিনায়ক ভুবনেশ্বরের বলে ২১ রান নেন রাসেল। শেষ ওভারে দরকার ছিল ১৩ রান। সাকিবের ৪ বল থেকেই ওই রান তুলে নেয় কলকাতা।

বাংলাদেশ অলরাউন্ডা সাকিব তার করা প্রথম ওভারেই উইকেট নিয়ে দারুণ শুরু করেন। কিন্তু ৩.৪ ওভারে ৪২ রান দিয়ে জন্মদিনে আইপিএলের ১২তম আসরের শুরুটা ভালো হলো না তার। হায়দরাবাদের হয়ে রশিদ খান ৪ ওভারে ২৬ রান দেন। নেন ১ উইকেট।

হায়দরাবাদের হয়ে ওয়ার্নার ছাড়া ভালো করেন ভারতীয় অলরাউন্ডার বিজয় শঙ্কর। তিনি ২৪ বলে খেলেন ৪০ রানের ইনিংস। এছাড়া ইংলিশ ব্যাটসম্যান জনি বেয়ারস্টো খেলেন ৩৯ রানের ইনিংস।