বিদ্যুৎ আমদানিতে ত্রিপক্ষীয় চুক্তিতে বাংলাদেশ-ভারত-ভুটান

ভারতের মধ্য দিয়ে নেপাল থেকে বাংলাদেশে বিদ্যুৎ আমদানি করার বিষয়ে একমত হয়েছে দিল্লি। একইসঙ্গে বাংলাদেশ, ভারত ও ভুটানের মধ্যে ত্রিপক্ষীয় জলবিদ্যুৎ সহযোগিতা সমঝোতা স্মারক দ্রুত স্বাক্ষরিত হওয়ার বিষয়েও আভাস মিলেছে।

রোববার রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে এক বৈঠকে বাংলাদেশের এ প্রস্তাবে সম্মতির কথা জানিয়েছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। বৈঠক শেষে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী বলেন, ‘নেপালের জলবিদ্যুৎ প্রকল্প থেকে বাংলাদেশে বিদ্যুৎ আমদানিতে সহায়তা করার জন্য ভারত সম্মত হয়েছে।’

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ বলেন, ‘বাংলাদেশে বিদ্যুৎ প্রয়োজন, তাই ভারত বাংলাদেশকে ৬৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ দিচ্ছে। অদূর ভবিষ্যতে এই পরিমাণ বাড়িয়ে দ্বিগুণ করা হবে।’

মাহমুদ আলী এক বিবৃতিতে বলেন, ‘সড়ক, রেল ও নৌপথে যোগাযোগ বাড়াতে ভারত ও বাংলাদেশ নানাভাবে কাজ করে আসছে। আঞ্চলিক যোগাযোগ বাড়ানোর জন্য আজ আমরা নতুন কিছু প্রস্তাব রেখেছি। ভারত সেগুলো ইতিবাচক হিসেবে বিবেচনার কথা বলেছে।’

বিবৃতি থেকে জানা যায়, ঢাকা-চেন্নাই-কলম্বো বিমান চলাচল, চট্টগ্রাম-কলকাতা-কলম্বো জাহাজ চলাচল, পঞ্চগড়-শিলিগুড়ি রেল যোগাযোগ, ভারতীয় ভূ-খণ্ডের ওপর দিয়ে ভুটানের সঙ্গে ইন্টারনেট যোগাযোগ, বাংলাদেশের নাকুগাঁও স্থলবন্দর থেকে ভারতের ডলু হয়ে ভুটানের গাইলেফুং স্থলবন্দরের সঙ্গে বাণিজ্য যোগাযোগের প্রস্তাব প্রভৃতি।

মাহমুদ আলী আরো বলেন, ভুটান যাতে চুক্তিতে যোগ দিতে পারে, সে সুযোগ রেখেই বাংলাদেশ, নেপাল ও ভারত বিবিআইএন মোটরযান চুক্তি বাস্তবায়ন করবে।

বাংলাদেশ সময়: ১১০৫ ঘণ্টা, ২৩ অক্টোবর    ২০১৭

লেটেস্টবিডিনিউজ.কম/এস পি