‘খালেদা জিয়ার শক্তি বেড়েছে’

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, খালেদা জিয়াকে কারাগারে পাঠানোর কারণে তার শক্তি অনেক বেড়ে গেছে। দেশনেত্রীকে কারাগার থেকে এ দেশের মানুষ অতিসত্বর বের করে আনবে মন্তব্য করে তিনি বলেন, সরকার মনে করেছে- দলের ভেতরে ভাঙন শুরু হবে। নেতাকর্মীর শূণ্যতায় ভুগবে বিএনপি। কিন্তু লক্ষ লক্ষ মানুষ খালেদা জিয়ার পেছনে রয়েছেন। আগের চেয়ে বিএনপির নেতাকর্মীরা আরো অনেক বেশি শক্তি নিয়ে মাঠে নেমেছে। আদালতের দণ্ডে কারারুদ্ধ বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহার এবং তার মুক্তির দাবিতে আজ বিএনপির ডাকা অবস্থান কর্মসূচিতে এসব কথা বলেন মির্জা ফখরুল।

নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত কর্মসূচিতে তিনি আরো বলেন, খালেদা জিয়াকে অন্যায়ভাবে জনমানবশূন্য একটি পরিত্যক্ত কারাগারে পাঠানে হয়েছে। সারা দেশে নেতাকর্মীদের নামে প্রচুর মামলা দেয়া হয়েছে। মামলা করা হয়েছে ১৫ লাখ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে। ফখরুল বলেন, এই সরকারের ক্ষমতায় থাকার নৈতিক কোন অধিকার নেই, আগেও ছিল না।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, সমাবেশ বা বিভিন্ন কর্মসূচীতে বিএনপি নেতাকর্মীদের বাধা দেয়া হচ্ছে। এভাবে মামলা হামলা করে বিএনপি নেতাকর্মী কমানো যাবে না। বিএনপি নেতাকর্মীরা আগের চেয়ে আরো অনেক বেশি শক্তিশালী। জনজোয়ার দেখে সরকার আজকে ভয় পেয়ে নির্ধারিত জায়গায় অনুষ্ঠান করতে দেয় নি বলে তিনি অভিযোগ ছিলেন।

অবস্থান কর্মসূচিতে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমেদ, মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারমেন অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, প্রফেসর ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবুল খায়ের ভুইয়া, আব্দুস সালাম প্রমুখ।

এর আগে কয়েক দফা অবস্থান কর্মসূচির ভেন্যু পাল্টানোর পর বেলা এগারোটায় নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান কর্মসূচি শুরু করে দলটি। প্রথমে প্রেসক্লাব ও পরে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে অবস্থান কর্মসূচি হওয়ার কথা থাকলেও পুলিশের অনুমতি না পাওয়ায় তা নয়াপল্টনে পালন করা হয়। অবস্থান কর্মসূচিতে যোগ দেন বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীরা।

বাংলাদেশ সময়: ১৩০০ ঘণ্টা, ১৩ ফেব্রুয়ারি , ২০১৮

লেটেস্টবিডিনিউজ.কম/এস