জাপায় ফিরছেন এরশাদের সাবেক স্ত্রী বিদিশা?

দেশের রাজনীতির বহুল আলোচিত চরিত্র এরশাদ। সাবেক এই  সেনাশাসকের নাটকের সর্বশেষ নজির জিএম কাদেরকে জাতীয় পার্টিতে (জাপা) পুনরায় ছিনিয়ে নেওয়া পদ ফিরিয়ে দেওয়া, এরশাদের নিজের মুখেই কাদেরকে ফের উত্তরসূরি ঘোষণা করা। জাপার কো-চেয়ারম্যান পদে পুনর্বহাল করা জিএম কাদেরই এরশাদের অবর্তমানে দলের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করবেন।

এদিকে জিএম কাদেরকে অপসারণ ও পুনঃবহাল নিয়ে হঠাৎ করেই জাপার বিভিন্ন ইস্যুতে সক্রিয় দেখা যাচ্ছে এরশাদের সাবেক স্ত্রী বিদিশাকে। তার দৃশ্যমান এই তৎপরতা নিয়ে নানা প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে পার্টির নেতাকর্মীদের মধ্যে। মূলত বিদিশার ফেসবুক পেজে দেওয়া সাম্প্রতিক পোস্টের কারণে এমন আলোচনা।

গত ২২ মার্চ রাতে হঠাৎ করেই জিএম কাদেরকে কো-চেয়ারম্যান পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার পর বিদিশা স্ট্যাটাস দেন ‘কবে যে যাত্রা পার্টি ইন এন্ড আউট খেলা শেষ হবে’। এই পোস্টে মোহাম্মদ সাদেক কমেন্টে লিখেছেন, ‘খেলা বন্ধ করতে আপনি এগিয়ে আসুন। আপনার পাশে এরশাদের আদর্শের সৈনিকরা থাকবে’। বিদিশা রিপ্লাই দিয়েছেন, ‘মোহাম্মদ সাদেক সময় আসছে’।

তেরো দিনের ব্যবধানে জিএম কাদেরকে যখন জাতীয় পার্টিতে আবার কো-চেয়ারম্যান পদে পুনঃবহাল করা হয়, তখন তিনি স্ট্যাটাস দিয়েছেন, ‘জিএম কাদের সাহেব আবার বহাল। মানি লোকের মান টা বাঁচল’।

সর্বশেষ ৫ এপ্রিল রাতে জিএম কাদেরকে জাপার ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান পদে পুনঃবহাল করেন এরশাদ। সাংগঠনিক আদেশে ২২ মার্চের দেওয়া আদেশটি বাতিল করেন এরশাদ। এবার লিখেছেন, ‘যাক, বাঁচা গেল। জাতীয় পার্টি একজন গার্জিয়ান পেলো’।

আহমেদ রিয়াজ কমেন্ট করেছেন, ‘স্যারের অসুস্থতায় আপনাকে পার্টির খুব কাছে নিয়ে এসেছে। বেশ ভালো লাগছে ইদানীং আপনি জাতীয় পার্টিকে এরিখের মতো ভালোবাসতে শুরু করেছেন।’ বিদিশা রিপ্লাই দিয়েছেন, ‘আহমেদ রিয়াজ আমি সব সময় জাতীয় পার্টি ও কর্মীদের এরিখের মতো ভালোবাসি। এই জন্য অন্য কোনো পার্টিতে আমি যোগ দেইনি আমি।’

এদিকে পার্টির নেতারা মনে করেন, এরশাদের অবর্তমানে জাপার ভবিষ্যৎ অন্ধকার। দুই থেকে তিনটি ধারা সৃষ্টি হতে পারে। একটি কাদেরের নেতৃত্বে, একটি রওশনের নেতৃত্বে। কাদেরকে অব্যাহতি ও পুনঃবহালের মাধ্যমে এই ফাটলের রূপরেখা স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। এটা আর পুরোপুরি নির্মূল হওয়া কঠিন। বিশেষ করে এরশাদের শারীরিক অসুস্থতা এখানে প্রধান কারণ।