Home রাজনীতি 'ন্যূনতম লজ্জা থাকলেও পদত্যাগ করতেন ফখরুল'

‘ন্যূনতম লজ্জা থাকলেও পদত্যাগ করতেন ফখরুল’

- Advertisement -

ন্যূনতম লজ্জাবোধ থাকলে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বহু আগেই দল থেকে পদত্যাগ করতেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ। আজ বৃহস্পতিবার সকালে কুষ্টিয়া শহরের নিজ বাসায় সাংবাদিকদের কাছে তিনি এ মন্তব্য করেন।

গতকাল বুধবার কারাবন্দী খালেদা জিয়া খুবই অসুস্থ বলে দাবি করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘তার সারা গায়ে ব্যথা। সরকার তার নেতৃত্বকে ভয় পায় বলেই সুপরিকল্পিতভাবে তাকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে।’

- Advertisement -

মির্জা ফখরুলের এই বক্তব্যের সমালোচনা করে হানিফ বলেন, ‘মির্জা ফখরুলের যদি ন্যূনতম লজ্জাবোধ থাকতো তাহলে এতিমের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে নেত্রী দণ্ডিত হওয়ার কারণে দল থেকে বহু আগেই পদত্যাগ অথবা দুর্নীতির কারণে দল থেকে দুর্নীতিবাজ খালেদা জিয়াকে অপসারণ করা উচিত ছিল। তা না করে বিএনপি সব সময় তাদের অপকর্ম ঢাকতে সরকারের ওপর দায় চাপানোর চেষ্টা করছে।’

গত মঙ্গলবার সকালে রাজধানীতে সুপ্রভাত পরিবহনের একটি বাসের চাপায় নিহত হন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী আবরার আহমদ চৌধুরী। এর পর শিক্ষার্থীরা নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলন শুরু করলে গতকাল অনেকটা স্থবির হয়ে যায় ঢাকা। পরে সরকারের পক্ষ থেকে আশ্বাস পেয়ে আগামী ২৮ মার্চ পর্যন্ত আন্দোলন স্থগিত করে শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীদের এই আন্দোলনে সমর্থন দেয় বিএনপি। দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন এক অনুষ্ঠানে বলেন, ‘ছাত্রদের এই আন্দোলনে আমাদের সম্পূর্ণ সমর্থন আছে।’এ ছাড়া দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীও আনুষ্ঠানিকভাবে এই আন্দোলনে সমর্থন দেন।

এ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীরা যে আন্দোলন করছে তাতে বিএনপি উসকানি দিচ্ছে। তিনি আরও বলেন, ‘ছোটখাট ইস্যুতে বিএনপি উসকানি দিচ্ছে। নিরাপদ সড়কের দাবিতে ছাত্রদের আন্দোলনেও বিএনপি সরকারের বিরুদ্ধে উসকানি দিচ্ছে। নিজেদের ক্ষমতা না থাকলে উসকানি দিয়ে কোনো লাভ নেই। এসব উসকানি দিয়ে বিএনপি রাজনৈতিকভাবে আরও দেউলিয়াত্বের প্রমাণ দিচ্ছে।’

উপজেলা নির্বাচন নিয়ে দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিগত দুই ধাপে ভোটারদের উপস্থিতি কম থাকলেও ভোট অনেকটা শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে। একই সঙ্গে আগামী নির্বাচনে ভোটারদের উপস্থিতি বাড়বে বলেও মনে করেন তিনি।

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের চিকিৎসা প্রসঙ্গে হানিফ বলেন, ‘তার বাইপাস সার্জারি সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। আগামী দুই এক সপ্তাহের মধ্যে সুস্থ হয়ে তিনি দেশে ফিরবেন বলে আশা করছি।’

- Advertisement -