বাতিল হলো তালেবান-যুক্তরাষ্ট্রের শান্তি আলোচনা

তালেবান বাতিল করে দিল যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তাদের সঙ্গে পূর্বপরিকল্পিত শান্তি আলোচনা।

মঙ্গলবার (০৯ জানুয়ারি) তালেবান জানিয়েছে, একটি এজেন্ডা নিয়ে মতানৈক্যের কারণে ওই বৈঠক বাতিল করা হয়েছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স আফগানিস্তানের শীর্ষ একজন তালেবান নেতার বরাত দিয়ে জানিয়েছে, তালেবান ও যুক্তরাষ্ট্র কাতারে শান্তি আলোচনায় না বসার ব্যাপারে একমত হয়েছে। ওই বৈঠকে আফগান সরকারের অংশগ্রহণ, সম্ভাব্য অস্ত্রবিরতি ও বন্দিবিনিময় নিয়ে মতবিরোধ দিলে বৈঠক বাতিলের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

শীর্ষ ওই নেতা জানান, বুধবার থেকে দুইব্যাপী ওই আলোচনা অনুষ্ঠিত হওয়ার পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু আফগান কর্মকর্তাদের ওই আলোচনা অংশ নেয়ার ব্যাপারে আঞ্চলিক শক্তিশালীগুলোর অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করেছিল তালেবান।

কাবুলে মার্কিন রাষ্ট্রদূত জন বাস বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ও তালেবানের মধ্যে বুধবার যে আলোচনার কথা, তা সঠিক নয়। বরং তালেবানের উচিত আফগান কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করা।

আফগানিস্তানের রাজধানীতে মার্কিন দূতাবাস এক টুইট বার্তায় জানায়, সংঘাত নিরসনে আফগানিস্তানের ভেতরকার আলোচনা অপরিহার্য।

পরে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, আফগানিস্তানের সংকট নিরসনে মার্কিন বিশেষ দূত জালমি খালিলজাদ ভারত, পাকিস্তান, চীন ও আফগানিস্তানের মধ্যে একটি আন্তঃসংস্থার প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেবে।

ওই বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, ৮ জানুয়ারি থেকে ২১ জানুয়ারির মধ্যে তারা প্রতিবেশি দেশগুলোর জ্যেষ্ঠ সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন। আফগানিস্তানের রাজনৈতিক সংকট সমাধান করতে এমন উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।