‘রিজার্ভ চুরির রায় বাংলাদেশের পক্ষে আসবে’

বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির ঘটনায় আমেরিকায় মামলা করলেও তদন্ত কমিটির রিপোর্ট এখন পর্যন্ত প্রকাশ করা হয়নি। বেঁধে দেয়া সময়ের একেবারে শেষ মুহূর্তে মামলা করায় আর্ন্তজাতিক আদালতে এই বিচারের রায় বাংলাদেশের বিপক্ষে যেতে পারে, বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। তবে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ বলছে, দেরিতে মামলা করার কোনও প্রভাব বিচারকাজে পড়বে না।

২০১৬ সালে সুইফটের নিরাপত্তা ব্যবস্থা হ্যাক করে পাঁচটি বার্তার মাধ্যমে চুরি যাওয়া অর্থের মধ্যে শ্রীলংকা থেকে দুই কোটি ডলার ফেরত আসে। আর ফিলিপাইনে যাওয়া আট কোটি ১০ লাখ ডলারের মধ্যে এখনও ফেরত আসেনি ছয় কোটি ৬৪ লাখ ডলার। ফিলিপাইনের রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকের মাধ্যমে এই অর্থ হ্যাকাররা তুলে নেয়।

রিজার্ভ চুরির এই ঘটনায় বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিনের নেতৃত্বে গঠিত তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন আর প্রকাশ করা হয়নি। এছাড়া, তদন্ত শেষই করতে পারেনি পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ- সিআইডি।

বিশেষ পুলিশ সুপার সিআইডি মোল্যা নজরুল ইসলাম জানান, ‘যারা টাকা নিয়ে গেল তাদের তথ্যতো জানতে হবে। যদি আমরা ইন্টেলিজেন্সরা জানিও যে তাদের তথ্য কি, কিন্তু ঐ দেশ থেকে যখন সঠিক তথ্য না আনা হবে তখনতো আদালতের কাছে প্রমাণের কোনও মূল্য আর থাকবে না।’

বিশেষজ্ঞরা বলছেন মামলা অনেক আগেই করা উচিত ছিল। প্রকাশ করা উচিত ছিল ফরাসউদ্দিনের তদন্ত কমিটির রিপোর্ট।

সাবেক তত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ড. মির্জা আজিজুল ইসলাম বলেন, ‘প্রথম দূর্বলতা হচ্ছে যে, এতদিন পরে কেনো মামলা? বাংলাদেশের যে নিজস্ব প্রতিবেদন সে প্রতিবেদনতো এখন পর্যন্ত প্রকাশিত হয়নি। মামলা চলাকালে রিজাল ব্যাংক এই বিষয়টি উপস্থাপন করতে পারে। তারা হয়তো বলবে বাংলাদেশ ব্যাংক কর্মকর্তারা এর সঙ্গে সরাসরি জড়িত সেই কারণেই বাংলাদেশ এই প্রতিবেদন প্রকাশ করছে না।’

রিজার্ভ চুরির এই ঘটনায় ফিলিপাইনের আরসিবিসির সাবেক শাখা ব্যবস্থাপক মায়া সান্তোস দেগুইতোর সম্প্রতি সর্বোচ্চ ৫৬ বছরের কারাদণ্ড ও ১০ কোটি ৯০ লাখ ডলার জরিমানার হয়েছে। নিউইয়র্কে করা মামলার রায়ও বাংলাদেশের পক্ষেই আসবে বলে আশা করছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

বাংলাদেশ ব্যাংক পরিচালক জামালউদ্দিন আহমেদ এফসিএ বলেন, ‘কেইসটা ক্র্যাপ করার জন্য দেরি হওয়াতে সুবিধা হয়েছে। কিছুদিন আগে যে জেল হলো তখন ফিলিপাইনের আদালত স্বীকার করলো যে, এটা ছিল একটি অর্থনৈতিক অপরাধ, অবৈধ এবং এটা আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক নীতি বিরুদ্ধে ছিল। এই সমস্ত কারণে ফিলিপাইনের দূর্বলতা সবচেয়ে বেশি।’

এই মামলা লড়তে নিউইয়র্কের শীর্ষস্থানীয় আইনি প্রতিষ্ঠান কুইন এমানুয়েলকে নিয়োগ দিয়েছে ফিলিপাইনের রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকিং করপোরেশন আরসিবিসি।

লেটেস্টবিডিনিউজ.কম/কেএস