‘অপমানে’র বিচার চায় পাকিস্তান

গতকাল রাতে অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া পাকিস্তান-নিউজিল্যান্ড প্রথম ওয়ানডের নিউজিল্যান্ড ইনিংসের ঘটনা। কিউইদের ইনিংসের মাঝামাঝি সময়ে ব্যাটিং করছিলেন রস টেইলর। বোলিংয়ে ছিলেন পাকিস্তানে সিনিয়র ক্রিকেটার মোহাম্মদ হাফিজ। হাফিজের বোলিংয়ের সময় অসন্তোষ প্রকাশ করতে দেখা যায় টেলরকে। একটা পর্যায়ে মাঠেই চাকিংয়ের ইঙ্গিত করেন টেলর। বিষয়টি নিয়ে বেশ গণ্ডগোলই বাধতে যাচ্ছে হয়তো!

মাঠে আম্পায়ারের কাছে কড়া প্রতিবাদ জানান পাকিস্তান অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। চাকিং করছেন কিনা সেটা দেখা আম্পায়ারদের কাজ, অবশ্যই কোনো ক্রিকেটারের কাজ নয়। তাছাড়া কিছুদিন আগেই আইসিসির পক্ষ থেকে বৈধ বোলিংয়ের সার্টিফিকেট পেয়েছেন হাফিজ। পাকিস্তান মনে করছে, তারপরও মাঠেই একজন ব্যাটসম্যানের চাকিংয়ের ইঙ্গিত করাটা হাফিজের জন্য অপমানকর। এই অপমানের বিচার চায় পাকিস্তান।

টেলরের বিরুদ্ধে ম্যাচ রেফারির কাছে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পাকিস্তান টিম ম্যানেজম্যান্ট। এতে সাজার মুখেও পড়তে হতে পারে টেলরকে।

ম্যাচ শেষে পাকিস্তান অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ বলেন, ‘রস টেলরের অঙ্গভঙ্গি ছিল ভুল। এটা তার কাজ নয়। টেলিভিশনের সামনেই তিনি যেভাবে অ্যাকশনটা দেখালেন, সেটা খুবই মানহানিকর ছিল। আমি মনে করি না এটা তার কাজ, তার কাজ হলো ব্যাট করা। ব্যাটিংয়ে মনোযোগ দেয়াটাই তার জন্য সঠিক ছিল।’

লেটেস্টবিডিনিউজ.কম/পিএস