বিশ্বব্যাপী চরম দুঃসময়েও দেশে খাদ্য সংকটের আশঙ্কা নেই: কৃষিমন্ত্রী

বিশ্বব্যাপী চরম দুঃসময়েও দেশে খাদ্য সংকটের আশঙ্কা নেই: কৃষিমন্ত্রী
কৃষিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক - সংগৃহিত ছবি

করোনা মহামারি ও রাশিয়া- ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে বর্তমান সরকারের সময়োপযোগী পদক্ষেপের ফলেই বিশ্বব্যাপী চলমান এই চরম দুঃসময়েও দেশে এখন পর্যন্ত খাদ্য সংকট হয়নি বলে কৃষিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক মন্তব্য করেছেন।

গতকাল শুক্রবার (২০ মে) বিকেলে ঢাকায় একটি হোটেলে লায়ন্স ক্লাব বাংলাদেশের ২৯তম বার্ষিক কনভেনশনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে কৃষিমন্ত্রী এসব মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, বিগত ১৩ বছরে দেশে কোনো রকম খাদ্য সংকট হয়নি। এমনকি করোনা এবং সাম্প্রতিক যুদ্ধের কারণে খাদ্য সংকট ও দুর্ভিক্ষের আশঙ্কার মধ্যেও দেশে খাদ্য সংকট হয়নি। দেশে খাদ্যের কোনো কষ্ট নেই।

এদিকে, গতকাল সন্ধ্যায় মন্ত্রী ঢাকার নারিন্দায় শ্রী শ্রী মাধব গৌড়ীয় মঠের শতবর্ষ উদযাপনের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন। এ সময় আরও ‍উপস্থিত ছিলেন সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু, স্থানীয় সংসদ সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদ, মঠের সভাপতি গিরিধারী লালমোদি প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। এ সময় সারাদেশ থেকে আগত মঠের অগণিত ভক্তবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় কৃষিমন্ত্রী বলেন, দেশে শান্তি বিরাজমান আছে, মানুষের নিরাপত্তা আছে; কোনো হরতাল ভাঙচুর নেই। এই শান্তি স্থিতিশীলতাকে ধরে রাখতে হবে।

তিনি বলেন, বিএনপি মানুষকে জিম্মি করে, ধর্মের নামে বিভ্রান্ত করে আন্দোলনের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসতে চায়, সেটি করতে দেয়া হবে না। এ ব্যাপারে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।

ধর্মীয় সম্প্রীতি রক্ষায় সবাইকে সজাগ ও ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ সাম্প্রদায়িকতাকে কখনো লালন করেনি। সাম্প্রদায়িকতাকে ব্যবহার করে রাজনীতি করে না। অপরদিকে বিএনপি সবসময় সাম্প্রদায়িকতাকে ব্যবহার করে রাজনীতি করে এবং ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের নির্যাতন করে।

তিনি বলেন, মৌলবাদী, ধর্মান্ধ ও ধর্মকে ব্যবহার করে ক্ষমতায় আসার সুযোগসন্ধানীরা এখনও তৎপর। সেজন্য, সব ধর্ম বর্ণের মানুষের মধ্যে সম্প্রীতি রক্ষায় আমাদের সবাইকে সচেতন ও ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। সবাই মিলে একত্র হয়ে সম্প্রীতি রক্ষায় কাজ করতে হবে।