আজ রাষ্ট্রপতি জাতীয় সংসদে ভাষণ দেবেন

আজ রাষ্ট্রপতি জাতীয় সংসদে ভাষণ দেবেন
রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ - ফাইল ছবি

আজ রবিবার জাতীয় সংসদের ষোড়শ অধিবেশন বসছে। মহামারীকালের অন্য অধিবেশনগুলোর মতো এবারও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবে সংসদের বৈঠক। করোনা ভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রনের সংক্রমণরোধে বাড়তি কড়াকড়ি আরোপ করা হবে। বিকাল ৪টায় সংসদের বৈঠক শুরু হবে। বছরের প্রথম এই অধিবেশনে ভাষণ দেবেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ।

ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) সংসদ অধিবেশনকে কেন্দ্র করে বরাবরের মতোই কয়েকটি বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। গতকাল শনিবার ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সংসদ এলাকায় শনিবার রাত ১২টা থেকে সকল প্রকার অস্ত্রশস্ত্র, বিস্ফোরক দ্রব্য, অন্যান্য ক্ষতিকারক ও দূষণীয় দ্রব্য বহন এবং যে কোনো প্রকার সমাবেশ, মিছিল, শোভাযাত্রা, বিক্ষোভ প্রদর্শন করা যাবে না।

সংসদ সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে, অধিবেশন শুরুর দিন কোভিড-১৯ পরীক্ষায় নেগেটিভ সনদ পাওয়া সংসদ সদস্যরা অংশ নেবেন। এরপর থেকে তালিকা অনুযায়ী সাংসদরা যোগ দেবেন। এবার গণমাধ্যমকর্মীদের শুধু প্রথম দিন অধিবেশনের খবর সংগ্রহের জন্য সংসদ ভবনে ঢুকতে দেওয়া হবে। শুক্রবার তাদের করোনা ভাইরাস পরীক্ষার জন্য নমুনা নেওয়া হয়।

আজ সংসদের বৈঠকের শুরুতে শোকপ্রস্তাব উত্থাপন ও সভাপতিমণ্ডলী মনোনয়নের পর স্পিকার রাষ্ট্রপতিকে ভাষণ দেওয়ার আহ্বান জানাবেন। রাষ্ট্রপতির ভাষণের পর অধিবেশন মুলতবি করার রেওয়াজ আছে। এর পর বৈঠক আবার বসলে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর ধন্যবাদ প্রস্তাব আনা হবে। অধিবেশনজুড়ে সেই প্রস্তাবের ওপর আলোচনা করবেন সংসদ সদস্যরা।

সরকারি দলের হুইপ ইকবালুর রহিম বলেন, এবার অধিবেশনে সংসদ কক্ষে বাড়তি কর্মচারীও রাখা হবে না।

ঠিক যে কয়জন দরকার, সেই অনুযায়ী রাখা হবে। সংসদ সদস্যরা যারাই বৈঠকে যোগ দেবেন তাদের করোনা ভাইরাস পরীক্ষা করাতে হবে। অধিবেশন ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি পর্যন্ত চলতে পারে।

জানা গেছে, এবার কয়েকটি আইন প্রণয়নের কাজ রয়েছে। নতুন চারটি খসড়া আইন সংসদে তোলার জন্য জমা পড়েছে। সেগুলো হলো- বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ ও ডেন্টাল কলেজ বিল, বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন (অ্যামেন্ডমেন্ট) বিল, বাণিজ্য সংগঠন বিল এবং পেমেন্টস অ্যান্ড সেটেলমেন্টস বিল। এ ছাড়া আগের সাতটি বিল সংসদীয় কমিটিতে পরীক্ষাধীন রয়েছে।