বাণিজ্য মেলার টিকিট কাটুন এখন অনলাইনে

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় মোট ৬০৫টি স্টল থাকছে। প্রথম বারের মত দর্শনার্থীদের জন্য অনলাইনে টিকিট কাটার সুযোগ রয়েছে।

বুধবার (৯ জানুয়ারি) থেকে শুরু হচ্ছে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা। এ উপলক্ষ্যে এরইমধ্যে সব প্রস্তুতি শেষ হয়েছে। লাইনে না দাঁড়িয়েও এবার টিকিট কেনার বন্দোবস্ত করেছে এর আয়োজক কর্তৃপক্ষ।

রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, এবারই প্রথম অনলাইনে টিকিট কাটার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। ফলে বাণিজ্য মেলায় আগ্রহী আগত দর্শনার্থীরা যেকোনও স্থান থেকে এই টিকিট কিনতে পারবেন। মোবাইল ফোন ব্যবহার করে অনলাইনের মাধ্যমে এই টিকিট সংগ্রহ করতে পারবেন।

কীভাবে অনলাইনে টিকিট কাটবেন?

বাণিজ্য মেলার টিকিট কাটতে হলে প্রথমে মোবাইল ফোন বা কম্পিউটার থেকে www.e-dift.com প্রবেশ করতে হবে। এবার নির্দিষ্ট তথ্য দিয়ে গ্রাহককে ৩টি ধাপ পেরুতে হবে।

ধাপ-১: প্রথম ধাপে আপনার কয়টি টিকিট প্রয়োজন তা উল্লেখ করতে হবে। যেমন এখানে লিস্ট আকারে দেয়া আছে। প্রাপ্ত বয়ষ্ক কতজন বা অপ্রাপ্ত বয়ষ্ক কতজনের- তা উল্লেখ করতে হবে। শুধু সিলেক্ট করলেই হবে। এরপর আপনাকে পরবর্তী ধাপে যেতে হবে।

ধাপ-২: এই ধাপে আপনার ঠিকানা দিতে হবে। যার মাধ্যমে আপনার নাম ও মোবাইল নম্বর উল্লেখ করতে হবে। এরপর পরবর্তী ধাপে যেতে হবে।

ধাপ-৩: তৃতীয় ধাপে টাকা পরিশোধের পালা। এটা শেষ হলেই আপনার টিকিট কনফার্ম হয়ে যাবে।

কিন্তু টাকা পরিশোধ হবে কীভাবে?

বাণিজ্য মেলা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, দুইভাবে এই টাকা পরিশোধ করা যাবে। একটি হলো মোবাইল ব্যাংকিং বিকাশ; আরেকটি ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ড।

এছাড়া নির্দেশনা মোতাবেক গুগল প্লে-স্টোর থেকে E-DTIF অ্যাপ ডাউনলোড করেও সেখান থেকে টিকিট ক্রয় করা যাবে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মফিজুল ইসলাম বলেন, এবার নতুনত্ব হিসেবে ডিজিটাল টিকিটিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সাধারণভাবে টিকিট বা বাণিজ্য মেলায় প্রবেশ মূল্য রাখা হয়েছে প্রাপ্ত বয়স্কদের ক্ষেত্রে ৩০ টাকা আর অপ্রাপ্ত বয়স্কদের ক্ষেত্রে ২০ টাকা। অনলাইনেও একই টাকা ধার্য করা হয়েছে। তবে চার্জ হিসেবে দর্শনার্থীকে ২.৩০ টাকা বাড়তি হিসেবে দিতে হবে।

তিনি বলেন, মেলা প্রাঙ্গনে দুটি ‘ডিজিটাল এক্সপেরিয়েন্স সেন্টার’ স্থাপন করা হয়েছে। মেলায় আগত দর্শনার্থীরা টাচ স্ক্রিনের মাধ্যমে উপস্থাপিত ডিজিটাল ম্যাপের বা ব্লো-আপ বোর্ডের মাধ্যমে মেলায় অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্য থেকে কাঙ্ক্ষিত স্টল বা প্যাভিলিয়নের নাম, নম্বর, অবস্থান ও ডিরেকশন জানতে পারবেন।

বুধবার বিকেলে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এই মেলার উদ্বোধন করবেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। উদ্বোধনের সঙ্গে সঙ্গে আনুষ্ঠানিকভাবে মাসব্যাপী বাণিজ্য মেলার ২৪ আসরের পর্দা উম্মোচিত হবে। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত এই মেলা সবার জন্য উম্মুক্ত থাকবে।