আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে ফের গম আমদানি শুরু, পৌঁছেছে ১০০০ টন

আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে ফের গম আমদানি শুরু, পৌঁছেছে ১০০০ টন
আখাউড়া স্থলবন্দরে আমদানি হওয়া গম - সংগৃহীত ছবি

আখাউড়া স্থলবন্দর ব্যবহার করে ভারত থেকে আসার কথা রয়েছে মোট ২ হাজার ৫০০ টন গম। এর অংশ হিসেবে গত ২৪ ও ২৫ আগস্ট এ স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে ১০০০ টন গম বাংলাদেশে আমদানি করা হয়েছে। এর মাধ্যমে প্রায় ১৬ দিন পর আবারও বাংলাদেশে গম আসল। এসব তথ্য সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

ভারতের ইন্টারন্যাশনাল প্রাইভেট লিমিটেডের সঙ্গে আড়াই হাজার টন গম আমদানির চুক্তি করে বাংলাদেশের ইসলাম এগ্রোবেট লিমিটেড নামের একটি প্রতিষ্ঠান। প্রতি টন গম ৩৭০ মার্কিন ডলারে (প্রায় ৩৫ হাজার ৩৩০ টাকা) আমদানি করা হচ্ছে। আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি হওয়া এ গমের কাস্টমস ক্লিয়ারিংয়ে কাজ করছে মেসার্স খলিফা এন্টারপ্রাইজ।

আখাউড়া স্থলবন্দর সূত্র জানিয়েছে, ২৪ আগস্ট সন্ধ্যা পর্যন্ত ১১টি ট্রাকে ৩০০টন এবং ২৫ আগস্ট ৫৪টি ট্রাকে আসে ৭০০টন গম। চলতি সপ্তাহেই বাকি দেড় হাজার টন গম আসার কথা রয়েছে।

মেসার্স খলিফা এন্টারপ্রাইজের প্রতিনিধি মো. মোজাম্মেল হক বলেন, গম রপ্তানিতে ভারত সরকারের নিষেধাজ্ঞা জারির পূর্বে ২৫০০ মেট্রিক টন গম আমদানির জন্য এলসি খুলেছিল ইসলাম এগ্রোবেট লিমিটেড। ওই এলসির প্রথম চালানে ১ হাজার টন গম গত দুইদিনে আখাউড়া স্থলবন্দরে এসেছে। এর মধ্যে বুধবার বিকেলে ১১টি ট্রাকে ৩০০ টন গম। আর বৃহস্পতিবার ৩৪টি ট্রাকে আসে বাকি ৭০০ টন গম। এদিন দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত প্রায় ১০০ টন গম বন্দর থেকে খালাস করা হয়।

আখাউড়া স্থলবন্দর সূত্রে জানা যায়, ২০২১ সালের ২ আগস্ট প্রথমবারের মত এ বন্দর দিয়ে গম আমদানি শুরু হয়। তখন প্রথম চালানে ৬৭টি ট্রাকে ১ হাজার ৩২০ টন গম দেশে আসে। এরপর চলতি বছরের মে মাসে আরও প্রায় দেড় লাখ টন গম বন্দরে পৌঁছায়। কিন্তু রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর পর নিজ দেশে গমের সরবরাহ স্বাভাবিক ও মূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখতে বাংলাদেশে গম রপ্তানি বন্ধ করে দিয়েছিল ভারত। এর দুইমাস পর গম রপ্তানি শুরু করে প্রতিবেশি দেশটি। কিন্তু অতিবৃষ্টি আর পাহাড়ি ঢলে রেললাইন ও সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় আগরতলা হয়ে বাংলাদেশে গম আমদানি ফের বন্ধ হয়ে যায়। পরে সব কিছু স্বাভাবিক হলে গত ১ আগস্ট আগরতলা স্থলবন্দর হয়ে আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে ফের গম রপ্তানি করে ভারত। তবে ৭ আগস্টের পর আর কোনো গমের চালান আসেনি।