হিটলার বিষয়ে চমকপ্রদ কিছু তথ্য, যা হয়তো কখনও শোনেননি

অনেকেই বলেন, এ পৃথিবীর সবচেয়ে অশুভ মনের মানুষটি হলেন অ্যাডলফ হিটলার। মূলত তার স্বৈরাচারী আদর্শ, হলোকাস্ট এবং লাখ লাখ মানুষ হত্যার জন্যে এমনটা ভাবা অপরাধ নয়।

আবার অনেকে তার মতাদর্শের পক্ষে সাফাই গান। এখানে সে বিতর্ক নয়। অন্য কিছু জেনে নিন। একটা মানুষ কী আসলেই নিরেট দানব মানসিকতার হতে পারে? তার এমন কিছু বিষয় ঠিকই থাকে যা জানলে আপনি অবাক হয়ে যাবেন। হিটলারের ক্ষেত্রে এমন অজানা বিষয় জানার আগ্রহ মানুষের চিরকালই থাকবে। ‘গিগগ্যাগ’ এখানে তুলে ধরছে হিটলার সম্পর্ক চমকপ্রদ কিছু তথ্য, যা হয়তো কোনদিন শোনেননি আপনি।

১. তিনি ধর্মযাজক হতে চেয়েছিলেন 
যে মানুষটি লাখ লাখ মানুষ হত্যার নির্দেশ জারি করেন, তার মনে ধর্মযাজক হওয়ার স্বপ্ন কীভাবে দানা বাঁধে? কিন্তু মাত্র ৪ বছর বয়সে সেই ইচ্ছাই দেখা দিয়েছিল হিটলারের মনে। এক শীতে সেই বয়সে একটি লেকে পড়ে যান তিনি। তাকে উদ্ধার করেন এক ধর্মযাজক।

ঘটনাটি তার মনকে আলোড়িত করে। মনের কৃতজ্ঞতা আর ভালোলাগা থেকেই তিনি বড় হয়ে ধর্মযাজক হওয়ার স্বপ্ন দেখেন। কিন্তু বড় হয়ে একটা পর্যায়ে নিজেই ঈশ্বর হওয়ার স্বপ্ন দেখতে থাকেন বলে মনে করেন অনেকে।

২. গাড়ি চালনা শেখেননি কখনও 
এটা এক অদ্ভুত বিষয়। হিটলার কখনও ড্রাইভিং শেখেননি। চেষ্টাও করেননি। অনেকের ধারণা, তার মনে এক ধরনের ভয় কাজ করতো। নিজের মানুষের সামনে যদি গাড়ি চালনায় দক্ষ না হতে পারেন, তবে তা সম্মানহানীকর। তবে নিজের বিশাল সেনাবাহিনীকে ব্যক্তিগত চালকের মাধ্যমে গাড়ি চালিয়েই নেতৃত্ব দিয়েছেন।

৩. প্রাণীপ্রেমী 
হিটলার কিন্তু প্রাণীদের দারুণ ভালোবাসতেন। তাই ওদের ওপর কোনো বৈজ্ঞানিক পরীক্ষার বিরোধিতা করতেন। নিজের খাদ্য তালিকায় নিরামিষ রাখতেন। আর এটাকে এক ধরনের মতাদর্শ হিসেবে প্রতিষ্ঠার পক্ষে ছিলেন।

৪. ধূমপান বিরোধী 
তরুণ বয়সে ব্যাপক ধূমপান করলেও এক পর্যায়ে তিনি এর বিরোধী হয়ে ওঠেন। সিগারেটের পেছনে অর্থের অপচয় হয় বলেই মনে করতেন। গণপরিবহনে ধূমপান নিষিদ্ধকরণে অ্যান্টি-স্মোকিং ক্যাম্পেইনও করেছেন তিনি।

৫. একটি অণ্ডকোষ 
অনেকেই এ কথা বলে গেছেন যে, হিটলার উর্বরতাজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন। প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় তিনি যুদ্ধরত অবস্থায় আঘাত পেয়েছিলেন। সার্জারিতে চিকিৎসক তার একটি অণ্ডকোষ বের করে ফেলেন। তার জীবন বাঁচাতেই এ কাজটি করতে হয়। ১৯১৬ সালে ব্যাটল অব সোমি-তে এমন ঘটনা ঘটেছিল।

৬. ইহুদি মেয়ের প্রেমে পড়েছিলেন 
শুনতে ভিড়মি খাবেন যে, হিটলার স্কুলে পড়ার সময় এক ইহুদি মেয়ের প্রেমে পড়েছিলেন। তার নাম ছিল স্টেফানি ইসাক। যদি মেয়েটিকে কখনও কিছু বলেননি। তবে ইসাককে দেখলেই দারুণ লজ্জাবোধ করতেন। যদিও পরবর্তিতে গোটা ইহুদি জাতির ওপর তার মনটা বিষিয়ে ওঠে।

৭. অসুস্থতা 
তিনি সারাজীবন গ্যাস্ট্রোইন্টেস্টিনাল ট্র্যাক সমস্যায় ভুগেছেন। প্রায় সময়ই পাকস্থলীতে ব্যথা, গ্যাস, ক্রনিক ডায়রিয়া আর খাওয়ার পর অস্বস্তিতে ভুগতেন। যদিও তিনি চিকিৎসকদের পরামর্শে ২৯ ধরনের ওষুধ খেয়েছিলেন। কিন্তু তেমন উপকার মেলেনি। সূত্র : গিগগ্যাগ

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৫ ঘণ্টা, ২৬ অক্টোবর, ২০১৭
লেটেস্টবিডিনিউজ.কম/পিকে