আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রীকে হত্যা করে ক্ষমতা দখলের চেষ্টা

Nikol Pashinyan

পূর্ব ইউরোপের রাষ্ট্র আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী নিকোল পাশিনিয়ানকে হত্যা করে ক্ষমতা দখলের একটি চেষ্টা করেছিল দেশটির সাবেক কর্মকর্তারা। তবে সেই পরিকল্পনা নস্যাৎ করে দেওয়ার দাবি করেছে দেশটির ন্যাশনাল সিকিউরিটি সার্ভিস (এনএসএস)।

এ ঘটনায় রিপাবলিকান পার্টির সংসদীয় শাখা ভাহরাম বাগদাসারায়নের সাবেক প্রধান আর্তুর ভনেটসায়ানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি এনএসএসের সাবেক প্রধান। এছাড়া যুদ্ধ স্বেচ্ছাসেবী অশোট মিনাসায়ানকেও গ্রেফতার করা হয়েছে।

শনিবার এক বিবৃতিতে এনএসএস বলেছে, ‘সন্দেহভাজনরা প্রধানমন্ত্রীকে হত্যা করে অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলের পরিকল্পনা করছিল। এমনকি তার জায়গায় দায়িত্ব দিতে সম্ভাব্য প্রার্থীদের নিয়েও ইতোমধ্যে আলোচনা হয়েছে।’

যুদ্ধে নিশ্চিত পরাজয় এড়াতে গত সপ্তাহের শুরুর দিকে রাশিয়ার মধ্যস্থতায় আজারবাইজানের সঙ্গে শান্তিচুক্তি করেন পাশিনিয়ান। চুক্তি অনুযায়ী প্রায় ৩০ বছর আর্মেনিয়ার দখলে থাকা বেশকিছু আজেরি ভূখণ্ড ছাড়তে হচ্ছে।

আলজাজিরা জানায়, এরপর থেকে পাশিনিয়ানের পদত্যাগের দাবিতে আর্মেনিয়ায় বিক্ষোভ হচ্ছে। পরাজয়ের দায় স্বীকার করলেও পদত্যাগে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন তিনি। বলেছেন, আরও ভূখণ্ড হাতছাড়া হওয়া ঠেকাতে চুক্তি না করে তার অন্য কোনো উপায় ছিল না।

উল্লেখ্য, নাগরনো-কারাবাখ নিয়ে গত ২৭ সেপ্টেম্বর পুরোদমে যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়া। একপর্যায়ে নাগরনো-কারাবাখের রাজধানী খানকেন্দি (স্টেপানাকার্ট) পতন ঠেকাতে শান্তিচুক্তি করে আর্মেনিয়া।