মেরিটাইম হোস্টেলে বিদেশ ফেরতদের জন্য কোয়ারেন্টিন সেন্টার

ctc hotel

করোনাভাইরাস আতঙ্কে আতঙ্কিত গোটা দেশ। নগরের সল্টগোলার ন্যাশনাল মেরিটাইম ইনস্টিটিউটের (এনএমআই) হোস্টেলকে ২০০ শয্যার কোয়ারেন্টিন সেন্টার হিসেবে ব্যবহারের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন সম্প্রতি চিঠি দিয়ে হোস্টেলটি রিকুইজিশন করেছে।

বিদেশ থেকে আসা বিমানযাত্রীদের কোয়ারেন্টিন সেন্টার হিসেবে ব্যবহৃত হবে এ সেন্টার। সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে এ কোয়ারেন্টিন সেন্টার পরিচালিত হবে বলে জানা গেছে।

ন্যাশনাল মেরিটাইম ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ ক্যাপ্টেন ফয়সাল আজিম বলেন, দেশের এ দুর্যোগে সরকার ন্যাশনাল মেরিটাইম ইনস্টিটিউটের হোস্টেলটি ব্যবহারের জন্য রিকুইজিশন করেছে। নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয় থেকেও স্থানীয় সরকার ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়কে সার্বিক সহযোগিতার জন্য নির্দেশ দিয়েছে। আমরাও সর্বাত্মকভাবে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছি।

তিনি জানান, সেনাবাহিনীর একটি প্রতিনিধি দল রোববার (১৯ এপ্রিল) ন্যাশনাল মেরিটাইম ইনস্টিটিউটের হোস্টেলটি পরিদর্শন করেছে। এ সময় সেনা কর্মকর্তারা হোস্টেলের অবকাঠামো, সুযোগ-সুবিধা ও পরিবেশ দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেন।

সূত্র জানায়, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে প্রতিবেশী দেশ ভারতে চলমান লকডাউনে আটকে পড়েছেন অনেক বাংলাদেশি। তাদের বিশেষ ফ্লাইটে দেশে ফিরিয়ে আনা হবে। এর পর ন্যাশনাল মেরিটাইম ইনস্টিটিউটের হোস্টেলে গড়ে তোলা কোয়ারেন্টিন সেন্টারে রাখা হতে পারে অন্তত ১৪ দিন।