চট্টগ্রামে যুবলীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা

Shots

ডিম ও পোনা সংগ্রহকারী এক যুবলীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। রোববার বিকেল সাড়ে চারটার দিকে চট্টগ্রামের রাউজান পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের অংকুরীঘোনা এলাকার মিলন বড়ুয়ার বাড়িতে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

নিহত ওই যুবকের নাম বিধান বড়ুয়া (৩৮)। তিনি ওই এলাকার মৃত সাধন বড়ুয়ার ছেলে ও পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সহসভাপতি।
পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, তিনি হালদা নদী থেকে ডিম ও পোনা সংগ্রহ করে বিক্রি করতেন।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, বিধানের বাড়িসংলগ্ন হালদা নদীতে এখন মা মাছ ডিম ছাড়ার মৌসুম। তবে এখনো নদীতে মা মাছ ডিম ছাড়েনি। কয়েক’শ ডিম সংগ্রহকারীর মধ্যে বিধান বড়ুয়া ছিলেন অন্যতম ডিম ও পোনা সংগ্রহকারী।

স্থানীয়দের ধারণা, নদীতে ডিম সংগ্রহকে কেন্দ্র করে তাঁকে হত্যা করতে পারে। আবার অনেকের ধারণা, এলাকার আধিপত্য নিয়ে খুনের এ ঘটনা ঘটতে পারে।

স্থানীয় বাসিন্দা, জনপ্রতিনিধি ও পুলিশের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বিধানকে বাড়ির সামনে গুলি করার পর সন্ত্রাসীরা ফাঁকা গুলি ছুড়তে ছুড়তে পালিয়ে যায়। পরে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় স্থানীয় লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে সন্ধ্যায় তাঁর মৃত্যু হয়।

রাউজান পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আলমগীর আলী বলেন, গত এক সপ্তাহ আগে বিধানের সঙ্গে পুকুরে মাছ চাষ নিয়ে স্থানীয় একটি প্রতিপক্ষের মারামারি হয়। এর মধ্যে রোববার বিকেলে বিধানকে বাড়ির সামনে কয়েকজন গুলি করে পালিয়ে যায়।
রাউজান পৌরসভা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল হক বলেন, বিধান পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সহসভাপতি ছিলেন।

রাত ১১ টায় রাউজান থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আমজাদ হোসেন বলেন, হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারে তাঁরা মাঠে আছেন। মামলার প্রক্রিয়া চলছে।