প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলা প্রকল্পে ২শ কোটি টাকার দুর্নীতি: টিআইবি

Transparency International Bangladesh

দেশে প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলায় সরকার গৃহীত বিভিন্ন প্রকল্পে ২শ কোটি টাকার মতো দুর্নীতি ও অনিয়ম দেখছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)। এছাড়া ঘূর্ণিঝড় আম্পানসহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলায় দুর্যোগ সাড়াদান কার্যক্রমে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক অঙ্গীকার, জাতীয় আইন, নীতি-আদেশ কার্যকরে ‘ঘাটতি’ ছিল বলেও মনে করছে সংস্থাটি।

আজ বৃহস্পতিবার (২৪ ডিসেম্বর) ‘দুর্যোগ মোকাবিলায় সুশাসনের চ্যালেঞ্জ ও উত্তরণের উপায়: ঘূর্ণিঝড় আম্পানসহ সাম্প্রতিক অভিজ্ঞতা’ শীর্ষক টিআইবির গবেষণা প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে আসে।

টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান ভার্চ্যুয়াল সংবাদ সম্মেলনে বলেন, পানি ব্যবস্থাপনা, বরগুনা ও পটুয়াখালীতে পোল্ডার নির্মাণ, মনু নদী সেচ ও পাম্পহাউজ পুনর্বাসন এবং খুলনার কয়রায় বাঁধ সংস্কার প্রকল্পের ক্ষেত্রে একটা হিসাব করতে পেরেছি। মোট টাকার অংক ছিল ১১০২ কোটি টাকা, আমরা অনিয়ম ও দুর্নীতি দেখতে পেয়েছি ২শ কোটি টাকার মতো। দুর্নীতির কারণে চারটি প্রকল্পে ক্ষতির পরিমাণ ১৯১ কোটি টাকা।

ইফতেখারুজ্জামান বলেন, আমাদের জাতীয় আয়ের ২ দশমিক ২ শতাংশের মতো ক্ষতি হয় প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে। আমরা যদি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় আরেকটু উৎকর্ষ অর্জন করতে পারি, তাহলে জাতীয় আয়ের বিশাল যে ক্ষতি, এটা কমিয়ে আনা সম্ভব।

সংবাদ সম্মেলনে টিআইবির ডেপুটি প্রোগ্রাম ম্যানেজার নেওয়াজুল মওলা ‘দুর্যোগ মোকাবিলায় সুশাসনের চ্যালেঞ্জ ও উত্তরণের উপায়: ঘূর্ণিঝড় আম্পানসহ সাম্প্রতিক অভিজ্ঞতা’ শীর্ষক প্রতিবেদনের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন।

তিনি দুর্যোগে ক্ষয়-ক্ষতি, ত্রাণ বিতরণ ও তদারকি সংক্রান্ত তথ্যের প্রতিবেদন প্রকাশ না করা, ত্রাণ সংক্রান্ত তথ্য ও সুবিধাভোগীর তালিকা স্থানীয় জনগোষ্ঠীর কাছে প্রকাশ না করা, ত্রাণ বরাদ্দ, বিতরণ ও পুনর্বাসন কার্যক্রমে ‘অনিয়ম’ এবং কার্যকর তদারকি ও অভিযোগ নিরসন ব্যবস্থার ‘ঘাটতি’ বিদ্যমান বলে মনে করছে টিআইবি।