বিদেশে অর্থপাচার: সম্রাট-আরমানের রিমান্ড চায় সিআইডি

Somrat-Arman

দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার দেশ মালয়েশিয়া ও সিঙ্গাপুরে ১৯৫ কোটি টাকা অর্থপাচারের মামলায় বহিষ্কৃত যুবলীগ নেতা ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট ও তার সহযোগী এনামুল হক আরমানের তিনদিনের রিমান্ড চেয়েছে সিআইডি।

আজ বুধবার (২৪ মার্চ) ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবুবকর ছিদ্দিকের আদালতে এ রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির পুলিশ পরিদর্শক মেহেদী মাকসুদ।

আদালত রিমান্ড শুনানির জন্য আগামী ৪ এপ্রিল দিন ধার্য করেছেন।

একইসঙ্গে এদিন মামলাটি তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ধার্য ছিল। কিন্তু এদিন তদন্ত কর্মকর্তা মেহেদী মাকসুদ এই প্রতিবেদন দাখিল না করায় আগামী ৯ মে প্রতিবেদনের জন্য পরবর্তী দিন ঠিক করেন আদালত।

গত বছর ১২ সেপ্টেম্বর সিআইডির অর্গানাইজ ক্রাইম বিভাগের ফিন্যান্সিয়াল ক্রাইম ইউনিটের সহকারী পরিদর্শক (এসআই) রাশেদুর রহমান বাদী হয়ে রাজধানীর রমনা থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়, বহিষ্কৃত যুবলীগ নেতা ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট রাজধানীর মতিঝিল, ফকিরাপুল, পল্টন ও কাকরাইল এলাকায় প্রভাব বিস্তার করে অবৈধ অর্থ উপার্জন করেছেন। তার উপার্জিত অবৈধ অর্থের মধ্যে ১৯৫ কোটি টাকা তিনি তার সহযোগী আসামি আরমানের সহায়তায় সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়া পাচার করেছেন।

সেই মামলায় গত বছর নভেম্বরে তাদের গ্রেফতার দেখানো হয়।