যেভাবে মাত্র ৩০ সেকেন্ডে ঠেকাবেন করোনা, কোরিয়ান গবেষণা

coronavirus

১০ মিলিলিটার মাউথওয়াশ দিয়ে ৩০ সেকেন্ড কুলকুচি করুন৷ তাহলেই করোনার সঙ্গে লড়ার জন্য অনেকটাই প্রস্তুত হতে পারবেন আপনি৷ এই মাউথওয়াশ দিয়ে কুলকুচি করলে লালারসে করোনার জীবাণুর কর্মক্ষমতা অনেকটা কমবে৷ তবে এর জের বজায় থাকবে ২ ঘণ্টা৷

কোরিয়ান ইউনিভার্সিটি অব মেডিসিন জানাচ্ছে, ক্লোহেক্সিডাইন (chlorhexidine mouthwash) মাউথওয়াশ দিয়ে গড়গড়া বা কুলকুচি করলে করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধ করা সম্ভব৷

ভারতীয় সংস্থা ICPA Health Products Ltd প্রায় ৩৫টি দেশে নিজেদের তৈরি মাল সরবরাহ করে, তারাই উৎপাদন করে ক্লোহেক্সিডাইন মাউথওয়াশ৷ গবেষণায় জানানো হয়েছে যে, লালার মাধ্যমে জীবাণু ছড়ানো রোধ করে এই মাউথওয়াশ৷ একবার ব্যবহারের পর ২ থেকে ৪ ঘণ্টা কিছুটা নিশ্চিত থাকা যায়৷ তাই হাসপাতালে বা সাম্প্রদায়িক সংক্রমণ রুখতে এর জুড়ি মেলা ভার৷

জানানো হয়েছে, SARS-CoV-2-জীবাণুর উপস্থিতি মারাত্মকভাবে পাওয়া গেছে লালায়৷ তাই অন্যের সঙ্গে কথা বলার ক্ষেত্রে এটা ছড়িয়ে পড়ে ব্যাপক হারে৷ তাই সাম্প্রদায়িক বা হাসপাতালে যাতে এই জীবাণু না ছড়ায় তার জন্য অনেক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে৷ মাস্ক ছাড়া বাইরে বের হতে নিষেধ করা হয়েছে৷ তবে এই তরল পদার্থ দিয়ে মুখে কুলকুচি করলে করোনা ছড়ানোর ভয় সাময়িকভাবে অনেকটা কমবে বলে মত গবেষকদের৷

গবেষণায় আরও জানানো হয়েছে, বিভিন্ন ক্ষেত্রের চিকিৎসকরা তাদের রোগীদের ক্লোহেক্সিডাইন (chlorhexidine) মাউথওয়াশ দিয়ে মুখ ধুয়ে আসার জন্য বলতে পারেন৷ চিকিৎসককে দেখাতে তাদের ক্লিনিকে গেলে অনেক ক্ষেত্রে সামাজিক দূরত্ব মেনে রোগী দেখা সম্ভব নয়৷ বিশেষ করে দাঁত, ত্বক বা চোখের চিকিৎসা করতে হলে রোগীর কাছাকাছি আসতেই হবে চিকিৎসককে৷ দাঁতের চিকিৎসার ক্ষেত্রে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি কম রাখতে, চিকিৎসকদের ১৫ থেকে ৩০ মিনিট অন্তর এই মাউথওয়াশ ব্যবহার করার কথা বলা হয়েছে৷

এছাড়াও, রেড জোন থেকে বা কন্টেইনমেন্ট জোন থেকে এসে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তিরা ক্লোহেক্সিডাইন মাউথওয়াশ প্রতি ২ ঘণ্টা অন্তর ব্যবহার করতেই পারেন৷ নিজের সুরক্ষার জন্য এই কাজটি করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ, বলছেন গবেষকরা৷

উপসর্গহীন যারা, তারা নির্দিষ্টভাবে ব্যবহার করতে পারেন এই মাউথওয়াশ৷ এর ফলে সংক্রমণের ওপর কিছুটা হলেও লাগাম টানা যাবে বলে মত গবেষকদের৷