ব্রাজিলে স্বামীকে হত্যার পর পৈশাচিক কাণ্ড স্ত্রীর

Cristina Rodrig Mercado
ক্রিস্টিনা রডরিগ মাকাডো ও তার স্বামী।

স্বামীর সঙ্গে স্ত্রীর ঝামেলা এটা নতুন কিছু নয়। এই রকম প্রায়ই হয়। কিন্তু দক্ষিণ আমেরিকার সর্ববৃহৎ রাষ্ট্র ব্রাজিলে ঘটেছে পৈশাচিক ঘটনা। ব্রাজিলে স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া করে মাথা ঠিক রাখতে পারেননি স্ত্রী। স্বামীকে রাগের মাথায় হত্যা করেন। হত্যার পর স্বামীর গোপনাঙ্গ কেটে কড়াইয়ে তেল দিয়ে ভেজে নেন। খবর পেয়ে পুলিশ পৌঁছে এসব দেখে হতবাক হয়ে যান। ৩৩ বছরের ওই নারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

অভিযুক্তের নাম ডায়ানে ক্রিস্টিনা রডরিগ মাকাডো। ব্রাজিলের গোনকালোতে স্বামীর সঙ্গে থাকতেন তিনি। ১০ বছর আগে তাদের বিয়ে হয়। ৮ এবং ৫ বছরের দুইটি সন্তানও রয়েছে তাদের। ২ বছর আগে স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদ হয় ক্রিস্টিনার। ফের এক সঙ্গে থাকছিলেন দুইজনে। কিন্তু সেটি কবে থেকে তা জানা যায়নি।

তবে প্রতিবেশীরা প্রায়ই তাদের ঝগড়া শুনতে পেতেন। ঘটনার দিন সেই রকমই চলছিল। এক সময় বিবাদ চরমে ওঠে। তখনই স্বামীকে খুন করেন ক্রিস্টিনা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় পুলিশ। পুলিশ ঘটনাস্থলে যেয়ে দেখে, রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছে ক্রিস্টিনার স্বামী। সারা শরীরে কোপানো হয়েছে। গায়ে কোনও জামা নেই।

পুলিশের কাছে জেরায় ক্রিস্টিনা স্বীকার করেন, স্বামীর গোপনাঙ্গ কেটে নিয়েছেন তিনি। তারপর কড়াইয়ে সয়াবিন তেল দিয়ে ভেজে ফেলেছেন। ঘটনাস্থল থেকে ছুরিটি উদ্ধার হয়েছে। সে সময় তার দুই সন্তান কোথায় ছিল জানা যায়নি।