পিডি সম্পর্কে বাজারে সমালোচনা হচ্ছে: পরিকল্পনামন্ত্রী

Muhammad Abdul Mannan

পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান জানিয়েছেন যে, প্রকল্প পরিচালক (পিডি) সম্পর্কে বাজারে অনেক নেতিবাচক-ইতিবাচক আলোচনা হচ্ছে। আজ মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর শেরে বাংলানগরে এনইসি সম্মেলনকক্ষে ২০২০-২০২১ অর্থবছরে নির্বাচিত চলমান প্রকল্পের নিবিড় পরিবীক্ষণ ও সমাপ্ত প্রকল্পের প্রভাব মূল্যায়ন সংক্রান্ত এক ওরিয়েন্টশন সভায় এ সব কথা বলেন মন্ত্রী।

এসময় তিনি প্রকল্প পরিচালকদের উদ্দেশে বলেন, ‘পিডিরা যারা এসেছেন, আপনাদের সম্পর্কে অনেক আলোচনা হচ্ছে বাজারে। আপনারা তো দেখেন, বোবা-কানা নন আমাদের মতো। তাই আপনাদের অনেক বেশি দায়িত্ব আছে। সরকারের উচ্চ পর্যায়ে পিডি সম্পর্কে চিন্তাভাবনা চলছে। এটাকে কীভাবে আরও বড় করা যায়, শক্তিশালী করা যায়, আপনাদের চলার পথে বাধাগুলো কীভাবে সরিয়ে দেওয়া যায়–এগুলো চিন্তাভাবনা চলছে। আমরা হয়তো নতুন নতুন আইডিয়া নিয়ে আসবো, কিন্তু চাপিয়ে দেব না। আপনাদের সঙ্গে আলোচনা করবো। উভয়পক্ষে আলোচনা করবো। সেভাবে কাজ করার প্রয়োজন আছে।’

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘নিজেদের অবস্থান সম্পর্কে আপনারা গর্ববোধ করবেন। ডোন্ট ফিল সাই, ডোন্ট বি অ্যাফ্রেইড।

তিনি বলেন, ‘সব কাজে আমাদের অবশ্যই ফেয়ার মনে থাকতে হবে। আমার কাছে প্রায়ই বিভিন্ন ধরনের অভিযোগ আসে। পড়ে মনে হয় যেন আবেগে লেখেছে। আবেগে, রাগে, ক্ষোভে লিখেছে। তবু তার কথা শুনতে হবে। তখন বিধিমোতাবেক বিবেচনার জন্য প্রদীপের (আইএমইডি সচিব) কাছে পাঠাই, সিপিটিইউতে (সেন্ট্রাল প্রকিউরমেন্ট টেকনিক্যাল ইউনিট) পাঠাই। বিধি মোতাবেক আমরা যেন সবাইকে শুনি।

এম এ মান্নান বলেন, আপনারা কাজ করেন। অহেতুক কাজ কমাতে হবে। অহেতুক প্রশংসা কমিয়ে আনতে হবে। মাঝে মধ্যে ধুলিঝড় উড়ে, দৌঁড়ায় যায়। দিনটা ২৪ ঘণ্টা ধূলিঝড় ৫ মিনিট। ধূলিঝড় জীবন নয়। মাঝেমাঝে আমরা ধূলিঝড় দেখে থাকি। ধূলিঝড় থেকে সাবধান থাকবো। ’

বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগে (আইএমইডি) সচিব প্রদীপ রঞ্জন চক্রবর্তীসহ ২৪ প্রকল্পের পিডি কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন।