খালেদা জিয়ার শারীরিক পরিস্থিতি নিয়ে যা বললেন চিকিৎসক

সংগৃহীত ছবি

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা (লেভেল) কমে গেছে, সঙ্গে আছে জ্বরও বলে জানিয়েছেন তার চিকিৎসকরা। রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) রেখে তাকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

আজ রোববার (৩১ মার্চ) বেলা ১টার কিছু সময় পর খালেদা জিয়ার মেডিকেল বোর্ডের এক চিকিৎসক গণমাধ্যমকে এই তথ্য জানিয়েছেন।

এর আগে, লিভার সিরোসিসের জটিলতা বেড়ে যাওয়ায় রোববার (৩১ মার্চ) মধ্যরাতে তাকে রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালের সিসিইউতে ভর্তি করানো হয়।

ডা. জাহিদ বলেন, হাসপাতালে আনার পরে খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা বলার মতো এখন কিছু হয়নি।

এর আগে, গত ২৮ মার্চ সন্ধ্যার দিকে খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটে। পরে তার গুলশানের বাসভবনে বেশ কিছু পরীক্ষা-নীরিক্ষা করে চিকিৎসকরা। চিকিৎসা পরবর্তী সময়ে খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলে তাকে বাসায় রেখে চিকিৎসা দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়া কারাগারে যাওয়ার পর থেকে তার অসুস্থতা বাড়া-কমার মধ্যে আছে। করোনা মহামারির সময় ২০২০ সালের ২৫ মার্চ সরকারের নির্বাহী আদেশে শর্তসাপেক্ষে মুক্তি পেয়ে বাসায় ফেরেন তিনি। এরপর বেশ কয়েকবার হাসপাতালে যান। সবশেষ গত বছরের মাঝামাঝি সময়ে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটে। এরপর থেকেই বেশ কয়েকবার হাসপাতালে থেকে চিকিৎসা নিয়েছেন তিনি।

সবশেষ, গত ১৩ মার্চ স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে নেয়া হয়েছিল খালেদা জিয়াকে। পর দিন ১৪ মার্চ রাতে তাকে হাসপাতাল থেকে বাসায় নিয়ে আসা হয়।