ইতেকাফ অবস্থায় গোসল করলে কি ইতিকাফ ভেঙে যাবে?

সংগৃহীত ছবি

ইতেকাফের অন্যতম প্রধান আমল হলো মসজিদে অবস্থান করা। শরঈ ওজর বা জরুরি প্রয়োজন ছাড়া মসজিদ থেকে বের হলে ইতেকাফ ভেঙে যায়। ইতেকাফরত অবস্থায় অজু, ফরজ-গোসল ও প্রাকৃতিক প্রয়োজন শরঈ ওজর গণ্য হয়। এ সব প্রয়োজনে মসজিদ থেকে বের হওয়া যায়। কিন্তু গোসল ফরজ না হলে অপ্রয়োজনীয় গোসল শরঈ ওজর বা জরুরি প্রয়োজন গণ্য হয় না। তাই অপ্রয়োজনীয় গোসলের জন্য মসজিদ থেকে বের হওয়া যাবে না।

তবে কেউ যদি প্রাকৃতিক প্রয়োজন পূরণের জন্য বা অজু করার জন্য মসজিদ থেকে বের হয়, তখন দ্রুত শরীরে পানি ঢেলে নিলে ইতেকাফের ক্ষতি হবে না। কিন্তু গোসলের জন্য দীর্ঘ সময় মসজিদের বাইরে অবস্থান করা জায়েজ হবে না। কেউ যদি শুধু অপ্রয়োজনীয় গোসল করার জন্য মসজিদ থেকে বের হয়, তাহলে তার ইতেকাফ ভেঙে যাবে।

ইতেকাফরত অবস্থায় রোজা রাখা জরুরি। কেউ যদি কোনো প্রয়োজনে রোজা ভেঙে ফেলে বা কোনোভাবে রোজা ভেঙে যায়, তাহলে তার ইতেকাফও ভেঙে যাবে। যেমন কেউ যদি অসুস্থতার কারণে রোজা ভেঙে ফেলে, তাহলে তার ইতেকাফও ভেঙে যাবে। একইভাবে ইচ্ছাকৃত পানাহার, সহবাস বা জাগ্রত অবস্থায় ইচ্ছাকৃত বীর্যস্খলন ঘটানোর কারণে কারো রোজা ভেঙে গেলে তার ইতেকাফও ভেঙে যাবে।