প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে আইসিসির এলিট প্যানেলে সৈকত

সংগৃহীত ছবি

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) এলিট প্যানেলের আম্পায়ার হিসেবে জায়গা পেলেন শরফুদ্দৌলা ইবনে সৈকত। আইসিসির বার্ষিক মূল্যায়ন এবং নির্বাচন প্রক্রিয়ায় সৈকতকে এ সম্মাননা দেওয়া হয়।

এটা বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য এক আনন্দের খবর। তার কারণ বাংলাদেশের প্রথম আম্পায়ার হিসেবে আইসিসির এলিট প্যানেলে জায়গা পেলেন সৈকত।

আজ বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে আইসিসি। ক্রিকেটের এই অভিভাবক সংস্থার বার্ষিক রিভিউ ও নির্বাচন প্রক্রিয়ায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আইসিসির আন্তর্জাতিক আম্পায়ার প্যানেল থেকে সৈকতকে এলিট প্যানেলে উন্নীত করার সিদ্ধান্তটি আইসিসির মহাব্যবস্থাপক (ক্রিকেট) ওয়াসিম খান, প্রাক্তন খেলোয়াড় এবং ধারাভাষ্যকার সঞ্জয় মাঞ্জরেকার, নিউজিল্যান্ডের অবসরপ্রাপ্ত আম্পায়ার টনি হিল এবং পরামর্শদাতা মাইক রিলির সমন্বয়ে গঠিত একটি নির্বাচন প্যানেল দ্বারা নেওয়া হয়েছে।

এর আগে, গত বছর ভারতে অনুষ্ঠিত ওয়ানডে বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো কোনো বাংলাদেশি আম্পায়ার হিসেবে প্রতিনিধিত্ব করেন সৈকত। যেখানে তিনি নিজের মুন্সিয়ানার পরিচয় দিয়ে সুনাম কুড়িয়েছেন। এরপর তিনি প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে নিরপেক্ষ আম্পায়ার হিসেবে গত জানুয়ারিতে অস্ট্রেলিয়া-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে দায়িত্ব পালন করেন।

বাংলাদেশি আম্পায়ারিং ইতিহাসে একাধিক কীর্তি গড়া সৈকত এখন পর্যন্ত আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১৩টি টেস্ট, ৮৫টি ওয়ানডে এবং ৫৯টি টি২০ ম্যাচ পরিচালনা করেছেন। পুরুষদের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথম বাংলাদেশি আম্পায়ার হিসেবে ১০০টি ম্যাচ পরিচালনা করারও কীর্তি আছে তার।