শাওমি নিয়ে এলো স্বল্প মূল্যে বাইক!

সংগৃহীত

চীনের জনপ্রিয় স্মার্টফোন কোম্পানী শাওমি মূলত ফোন প্রস্তুতকারক সংস্থা হিসেবেই পরিচিত। এখন শাওমি শুধু ফোন নয়, ফোনের নানা আনুষঙ্গিক উপকরণ, স্মার্ট টিভি, বায়ু বিশোধকের (এয়ার পিউরিফায়ার) মতো সামগ্রীও বিক্রি করছে। সেই তালিকায় ইলেকট্রিক বাইকও আছে । সেই তালিকাকে আরও সমৃদ্ধ করতে নতুন একটি ইলেকট্রিক বাইক বাজারে আনল শাওমি।

চীনের বাজারে এই নয়া ইলেকট্রিক বাইক নিয়ে এলো শাওমি। শাওমি কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায় চাহিদার দিকে নজর রেখে বাইকটি বাংলাদেশের বাজারেও আনা হবে। বাংলাদেশী টাকায় ‘হিমো টি ওয়ান’ নামের ঐ বাইকটির বাজার মূল্য পড়বে প্রায় ৩৭ হাজার টাকা।

শাওমি কর্তৃপক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আগে হিমো ভি ওয়ান, হিমো সি ২০ ফোল্ডিং বাইক নামে আরও দু’টি ইলেকট্রিক বাইক বাজারে নিয়ে এসেছিল শাওমি। নতুন এই বাইকটির নাম হিমো টি ওয়ান। লাল, ধূসর এবং সাদা এই তিনটি আকর্ষণীয় রঙে পাওয়া যাবে ইলেকট্রিক বাইকটি।

হিমো টি ওয়ান মডেলের এই বাইকটি ১৪০০০ এমএএইচ এবং ২৮০০০ এমএএইচ দুই ধরনের ব্যাটারী সহযোগে পাওয়া যাবে এবং ব্যাটারীর এমএএইচ এর পার্থ্যকের কারণে দুটি মডেলে দামের তারতম্য হবে। ১৪০০০ এমএএইচ ব্যাটারী চালিত বাইক একবার চার্জ দিলে ৬০ কিমি পথ অতিক্রম করবে। ২৮০০০ এমএএইচ ব্যাটারী চালিত বাইক অতিক্রম করবে ১২০ কিমি।

৫৩ কেজি ওজনের হিমো টি ওয়ান-এর সর্বোচ্চ গতিবেগ প্রতি ঘণ্টায় ২৫ কিলোমিটার। বাইকটিতে রয়েছে ফ্রন্ট সাসপেনশন ফর্ক, ডুয়াল কয়েলওভার রিয়ার সাসপেনশন, রিয়ার সাইড ড্রাম ব্রেক এবং ফ্রন্ট সাইড হাইড্রোলিক ডিস্ক ব্রেক। আরও অন্যান্য ফিচারের মধ্যে রয়েছে ওয়ান বাটন স্টার্ট, মাল্টি ফাংশন কম্বিনেশন সুইচ এবং ডিজিটাল ডিসপ্লে। তাছাড়াও রয়েছে ৯০ এমএম ওয়াইড টায়ার, এলইডি লাইট। মাঝপথে ব্যাটারীর চার্জ শেষ হয়ে গেলে অথবা ইলেকট্রিক কোন সমস্যা হলে প্যাডেল করে বাইক চালানোর ব্যবস্থাও বাইকটিতে রয়েছে।