উদ্বিগ্ন মোদি, লকডাউন মানছেন না অনেকেই

ছবিঃ সংগৃহীত

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ দিনে দিনে ভারতে বেড়েই চলছে। গত কয়েকদিনের মধ্যেই লাফিয়ে লাফিয়ে দেশে করোনা সংক্রমণ বেড়েছে, এই মুহূর্তে সরকারি তথ্য অনুযায়ী ৪০০ জনেরও বেশি মানুষ আক্রান্ত ওই মারণ ভাইরাসে। অনেকেই বলছেন, দেশের মানুষ সচেতন না হলে এই সংক্রমণ (Coronavirus) আরও ছড়াবে।

ইতিমধ্যেই দেশের সাম্প্রতিক করোনা পরিস্থিতির কথা তুলে ধরে সকলকে লকডাউন মেনে চলার অনুরোধ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এই বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে সোমবার টুইট করেছেন তিনি।

উদ্বেগ প্রকাশ করে মোদি জানিয়েছেন, করোনা ভাইরাসের বিধিনিষেধের মধ্যেও এখনও অনেকে এই পরিস্থিতিকে গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করছেন না। ফলে দেশের সকল নাগরিককে করোনা ভাইরাসের জন্য প্রয়োজনীয় সতর্কতা বজায় রেখে চলার আহবান জানিয়েছেন তিনি।

সোমবার টুইট বার্তায় নরেন্দ্র মোদি লিখেছেন, অনেক মানুষ এখনও লকডাউনকে গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করছেন না। দয়া করে নিজেকে বাঁচান, আপনার পরিবারকে বাঁচান, এই নির্দেশগুলোকে গুরুত্ব দিয়ে অনুসরণ করুন। আমি রাজ্য সরকারগুলোকেও অনুরোধ করছি যাতে সব রাজ্যগুলোতেই এই সব নির্দেশিকা মেনে চলার বিষয়টি নিশ্চিত করা যায়।

ভারতী গণমাধ্যমে জানানো হয়, এখনও পর্যন্ত ভারতে মরণ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে কমপক্ষে ৩৯০ জন এবং মারা গেছেন ৭ জন। ফলে ভাইরাসটি ঠেকাতে আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত মহারাষ্ট্র, কেরল, দিল্লি, গুজরাট, উত্তরপ্রদেশ, হরিয়ানা, কর্নাটক, তেলেঙ্গানা, রাজস্থান, অন্ধ্রপ্রদেশ, তামিলনাড়ু, পঞ্জাব, জম্মু ও কাশ্মীর, লাদাখ, পশ্চিমবঙ্গ, চণ্ডীগড়, ছত্তিশগড়, হিমাচলপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ, ওড়িশা, পুদুচেরি এবং উত্তরাখণ্ডে চলবে না কোনও ট্রেন, চলবে না মেট্রোও। পাশাপাশি বন্ধ থাকবে আন্তঃরাজ্য বাস চলাচলও। শপিং মল, সিনেমা হল, স্কুল, কলেজ এবং জিমও বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে অনেক রাজ্যে।