করোনাভাইরাস বাতাসে ১৩ ফুট পর্যন্ত ছড়াতে পারে

ছবিঃ সংগৃহীত

আক্রান্ত ব্যক্তি থেকে ১৩ ফুট (৪ মিটার) পর্যন্ত ছড়াতে পারে নভেল করোনাভাইরাস। চীনের গবেষকদের নতুন এক গবেষণায় এমন ভয়াবহ তথ্য পাওয়া গেছে। সাধারণত বলা হয়, কোনো রোগীর কাছ থেকে দু’মিটার দূরত্বে থাকলে এ ভাইরাসে সংক্রমিত হওয়ার সম্ভবনা থাকে না ।

চীনের ওই গবেষকের দল উহানের হৌশেনশান হাসপতালের কোভিড আক্রান্তদের আইসিইউ ও জেনারেল ওয়ার্ডের বায়ু ও মেঝের থেকে নমুনা সংগ্রহ করে গবেষণাটি চালান।সেখানে দেখা যাচ্ছে, একটি হাসপাতালে এক করোনা আক্রান্ত রোগীর থেকে ১৩ ফুট দূরত্বেও কার্যকর রয়েছে করোনা ভাইরাস।

গবেষণায় বলা হয়, হাসপাতালের মেঝেতেই সবচেয়ে বেশি ভাইরাস পড়ে রয়েছে। মাধ্যাকর্ষণ শক্তি ও বায়ুর গতির কারণেই এই ঘটনা ঘটেছে বলে গবেষকরা মনে করছেন।এছাড়াও অত্যাধি‌ক ভাইরাস পাওয়া গেছে কম্পিউটারের মাউস, ডাস্টবিন, বিছানা ও দরজার হাতলে।
চিকিৎসা দেয়া স্বাস্থ্যকর্মীদের জুতোয়ও করোনা ভাইরাস পাওয়া গেছে।এছাড়া ওই হাসপাতালের বাতাস পরীক্ষা করেও দেখা গিয়েছে, ভাইরাসের আকার এতই ক্ষুদ্র যে এটি বাতাসে কয়েকঘণ্টা ভেসে থাকতে পারছে। আর বাতাসে ভেসে বেড়ানোর ক্ষেত্রে আক্রান্তের থেকে ১৩ ফুট দূরত্বের মধ্যেই সেটি ঘুরে বেড়াচ্ছে বলে জানিয়েছেন গবেষকরা।

বলা হয়েছিল, টিকা বাজারে আনার জন্য অন্তত ১৮ মাস সময়ে লেগে যেতে পারে। অধ্যাপক গিলবার্ট এখন বলছেন, সবকিছু ঠিকঠাক মতো কাজ করলে আগামী সেপ্টেম্বর নাগাদই কার্যকর টিকা আনা যাবে। আমরা এ মুহূর্তে যে টিকা নিয়ে কাজ করছি সেটি কার্যকর হবে এর সম্ভাবনা অনেক বেশি। আমি ৮০ শতাংশ আশাবাদী যে, টিকাটি সফল হবে।