মহামারী করোনার ভ্যাকসিন তৈরিতে বৈশ্বিক উদ্যোগেও থাকছে না যুক্তরাষ্ট্র

WHO

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ব্যর্থ হয়েছে অভিযোগ করে এরই মধ্যে সংস্থাটির আর্থিক অনুদান বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। শুধুই তাই নয়, এই সংস্থা থেকে একেবারে বের হয়ে যাওয়ারও ইঙ্গিত দিয়েছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। এবার করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরির উদ্যোগেও না থাকার ঘোষণা দিল দেশটি।

শুক্রবার ডব্লিউএইচও জানায়, বিশ্ব নেতৃবৃন্দ ও করোপোরেট বিশ্বের নেতাদের নিয়ে নতুন করোনাভারাসের প্রতিষেধক ও কোভিড-১৯ চিকিৎসায় কার্যকর ওষুধ তৈরিতে একটি উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। কিন্তু এর পরই যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়, বৈশ্বিক এ উদ্যোগের সঙ্গে তারা নেই।

এক বিবৃতিতে ডব্লিউএইচও প্রধান টেড্রস আধানম গেব্রিয়েসুস বলেন, ‘কোভিড-১৯ এর চিকিৎসা, এর পরীক্ষা ও একটি নিরাপদ ও কার্যকর ভ্যাকসিন তৈরি, উৎপাদন ও সমভাবে বিতরণের লক্ষ্যে এটি একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ উদ্যোগ।’

তিনি বলেন, ‘কোভিড-১৯ মোকাবেলায় সব মানুষ যেন আমাদের হাতে থাকা সব অস্ত্র ব্যবহারের সুযোগ পায়, তা নিশ্চিতের লক্ষ্যেই আমাদের এ উদ্যোগ। আমরা সবাই একই হুমকির মুখে রয়েছি, যা উত্তরণে সম্মিলিত উদ্যোগ জরুরি।’

এ ঘোষণার পর জেনেভায় নিযুক্ত মার্কিন প্রতিনিধি বলেন, ‘এই উদ্যোগে যুক্তরাষ্ট্রের অংশগ্রহণ থাকবে না। তবে এ উদ্যোগের দিকে আমরা দৃষ্টি রাখব।’