আমি সব কিছু স্ত্রী বুশরা খানের সঙ্গে আলোচনা করি: ইমরান খান

Imran Khan

স্ত্রী বুশরা খানের সঙ্গে আমার আত্মার সম্পর্ক বলে জানিয়েছেন, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। সে আমার সঙ্গী। আমি তাকে ছাড়া বাঁচতে পারব না। সে যথেষ্ট জ্ঞানী। বোকারা স্ত্রীকে সব কথা বলে না। আমি সব কিছু নিয়ে স্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করি। সরকার পরিচালনা করতে গিয়ে আমি যেসব সমস্যার সম্মুখীন হই, তা নিয়ে আলোচনা করি। বিভিন্ন জটিল পরিস্থিতি নিয়েও আলোচনা করি।

শুক্রবার জার্মান ম্যাগাজিন ‘দেয়ার স্পিগেলস’-এর সাংবাদিক জুজানে কোয়েলডকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেন তিনি।

ইমরান সরকারে বুশরার প্রভাব নিয়ে যখন দেশটির রাজনৈতিক অঙ্গনে আলোচনা জোরালো হচ্ছে, তখন স্ত্রীর এ প্রশংসা করলেন প্রধানমন্ত্রী। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান প্রায়ই তার স্ত্রীর জ্ঞানের প্রশংসা করেন। পিটিআই সরকারের ১০০ দিন পূর্তিতেও বুশরার ভূয়সী প্রশংসা করেন তিনি।

পাকিস্তানের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ইমরান খান ২০১৮ সালে তৃতীয়বারের মতো তার আধ্যাত্মিক ধর্মগুরু বুশরা মানেকার সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। এর পর বুশরার নামের সঙ্গে খান ‍যুক্ত হয়।

১৯৯৫ সালে ব্রিটিশ নাগরিক জেমিমা গোল্ডস্মিথকে বিয়ে করেছিলেন এক সময়কার প্লে বয় ইমরান খান। ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে পাকিস্তানের লাহোরে থাকতেন জেমিমা। কিন্তু ইহুদি পরিবারে জন্ম হওয়ায় পাকিস্তানের মানুষ তাকে তেমন পছন্দ করতে পারেননি। ইমরান আর জেমিমার ঘর ভাঙে ২০০৪ সালে। জেমিমার গর্ভে জন্ম নেয়া দুই ছেলে আছে ইমরান খানের। বিচ্ছেদের পর দুই ছেলে সুলাইমান খান ও কাশিম খানকে নিয়ে যুক্তরাজ্যেই থাকেন জেমিমা গোল্ডস্মিথ।