মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সাড়ে তিন মাসে দেড় শতাধিক বন্দুক হামলা

United States

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মহামারি করোনার সাথে দিন দিন বেড়েই চলছে বন্দুক হামলাও। এই চলতি বছরে মাত্র সাড়ে তিন মাসেই যুক্তরাষ্ট্রে ৪৫টি শহরে দেড় শতাধিক বন্দুক হামলা ঘটেছে। এদিকে বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) ইন্ডিয়ানাপোলিসে কুরিয়ার সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান ফেডএক্সের কার্যালয়ে হামলাকারীর পরিচয় প্রকাশ করেছে পুলিশ। একের পর এক বন্দুক হামলার ঘটনায় স্থানীয় বাংলাদেশিরা উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠায় দিন কাটাচ্ছেন।

বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ইনডিয়ানা অঙ্গরাজ্যের ইনডিয়ানাপোলিস শহরে বিমানবন্দরের কাছে কুরিয়ার সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান ফেডএক্সের কার্যালয়ে বন্দুক হামলা চালিয়ে আটজনকে হত্যা করে ১৯ বছরের ব্রেনডন হোল। আহত হন আরও অনেকে। এ ঘটনায় টনক নড়েছে প্রশাসনে।

শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এক টুইট বার্তায় ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন। শোক প্রকাশে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হয় হোয়াইট হাউসে।

সিনেটে ডেমোক্র্যাট নেতা চাক শুমার বলেছেন, কংগ্রেসে অস্ত্র বিল আনবেন তারা।

এদিকে, ফেডএক্সের কার্যালয়ে হামলাকারীর পরিচয় প্রকাশ করা হয়েছে।
পুলিশ জানিয়েছে, হামলাকারী ব্রেনডন ফেডএক্সেই এক সময় কাজ করতেন। তিনিই এই হামলা চালিয়েছেন বলে নিশ্চিত হয়েছেন তারা।

যুক্তরাষ্ট্রে দিন দিন এমন হামলা বাড়তে থাকায় উদ্বিগ্ন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। তারা অস্ত্র আইন কঠোর করার জোর দাবি জানিয়েছেন।

সমাজ-উন্নয়ন ও মানবাধিকার কর্মী মাসুম মাহবুব বলেন, আমরা আশা করি সরকার কঠোর হস্তে দমন করবে এবং এ ধরনের ঘটনা আর না যেন ঘটে, সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবে।

ইন্ডিয়ানা ইমিগ্রেশন কনসালটেন্ট এম এম নুরুজ্জামান বলেন, খুব দ্রুত অস্ত্র নিয়ন্ত্রণের জন্য আইন প্রণয়ন করা উচিত। যাতে মানুষ এ ধরনের এলোপাতাড়ি গুলি করে অজস্র মানুষের প্রাণহানি ঘটাতে না পারে।

এদিকে, শুক্রবার টেক্সাসের সান অ্যান্টোনিও শহরে পুলিশের ওপর গুলি চালায় বন্দুকধারী। পাল্টা গুলিতে সহযোগীসহ নিহত হয় হামলাকারী।
এর আগে বৃহস্পতিবার একই শহরের বিমানবন্দরে প্রবেশের সময় পুলিশের ওপর হামলা চালায় অপর এক বন্দুকধারী।

চলতি বছরের মাত্র সাড়ে তিন মাসেই যুক্তরাষ্ট্রে ৪৫টি শহরে দেড় শতাধিক বন্দুক হামলা ঘটেছে। এতে প্রাণ হারিয়েছেন প্রায় ২০০ জন। সহিংসতা ক্রমেই বাড়তে থাকায় অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইন কঠোর করা জরুরি হয়ে পড়েছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।