বিভিন্ন প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে ‘যৈবতী কন্যার মন’

‘যৈবতী কন্যার মন’ ছবির একটি দৃশ্য

সরকারি অনুদানে নির্মিত ‘যৈবতী কন্যার মন’ পরিচালক নার্গিস আক্তারের ছবি। পরিচালক নার্গিস আক্তারের নামে মামলাও হয়েছে নির্ধারিত সময়ে ছবির কাজ শেষ না হওয়ার কারণে। অবশেষে গত শুক্রবার থেকে ‘যৈবতী কন্যার মন’ চলছে দেশের বিভিন্ন প্রেক্ষাগৃহে।

২০১২-১৩ অর্থবছরে নাট্যচার্য সেলিম আল দীনের মঞ্চনাটক ‘যৈবতী কন্যার মন’ অবলম্বনে ছবিটি নির্মাণের জন্য অনুদান পান নার্গিস আক্তার। পরিচালনার পাশাপাশি মূল গল্পকে ঠিক রেখে এর চিত্রনাট্যও করেছেন নার্গিস আক্তার।

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কারপ্রাপ্ত নির্মাতা নার্গিস আক্তার জানান, বিভিন্ন প্রতিকূলতার মাঝে ছবিটির নির্মাণের কাজ শেষ করতে বেশ সময় লেগে যায়। এটিএন বাংলার চেয়ারম্যান ড. মাহফুজুর রহমানের সার্বিক সহযোগিতায় অবশেষে তিনি গত বছর এর কাজ সম্পন্ন করেন। গত বছর মার্চে ছবিটি মুক্তির কথা ছিল। কিন্তু করোনার পরিস্থিতির কারণে তা আটকে যায়। অবশেষে গত শুক্রবার ছবিটি মুক্তি মুখ দেখল।

নার্গিস আক্তার আরও জানান, ‘যৈবতী কন্যার মন’ মোট আটটি হলে মুক্তি পেয়েছে। হলগুলো হল ঢাকার যমুনা ফিউচার পার্কের ব্লকবাস্টার সিনেমাস, স্টার সিনেপ্লেক্স এবং শ্যামলী সিনেমা আর ঢাকার বাইরে খুলনার সঙ্গীতা, মানিকগঞ্জের নবীন, মধুপুরের মাধবী, পাবনার রুপকথা এবং নাগরপুরের রাজিয়া।

ছবিটিতে কলকাতার সায়ন্তনী দত্ত অভিনয় করেছেন কালিন্দী চরিত্রে ও আলাল চরিত্রে অভিনয় করেছেন বাংলাদেশের গাজী আব্দুন নূর। এ ছাড়া গাজী রাকায়েত, গোলাম ফরিদা ছন্দাসহ আছেন আরো অনেকে।