নেত্রকোনায় নির্জন হাওরে কোয়ারেন্টাইন, পুলিশের হস্তক্ষেপে বাড়ি ফিরল ১৭ পরিবার

hawor

নেত্রকোনার খালিয়াজুরি উপজেলায় নির্জন হাওরে অবস্থান করা ঢাকা ফেরত ১৭টি পরিবার পুলিশের সহায়তায় বাড়ি ফিরেছে। নেত্রকোনা পুলিশ সুপার মো. আকবর আলী মুনসী খবর পেয়েই এলাকায় পুলিশ পাঠিয়ে তাদেরকে নিজ নিজ বাড়িতে পোঁছে দেন। এসময় তিনি জানান, তাদেরকে খাদ্য সহায়তাসহ সকল নিরাপত্তা প্রদান করা হবে। এই ঘটনার সাথে যারা জড়িত ছিলো তাদের বিরুদ্ধেও ব্যাবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।

প্রায় ১২ দিন পূর্বে তারা গ্রামে আসেন। গ্রামের প্রভাবশালীরা বাড়িতে উঠতে না দিয়ে উপজেলার নগর ইউনিয়নের চাঁনপুর গ্রামের কসমা হাওরে খুপরি করে থাকতে দেয় তাদের। এদের মধ্যে অনেকেই গার্মেন্টস কর্মী, ঢালাইয়ের কাজসহ বিভিন্ন বাসা বাড়িতে কাজ করতো। কয়েক ধাপে তারা এলাকায় আসলে ওই হাওরে তাদেরকে থাকতে বাধ্য করা হয়। খবর পেয়ে ইউএনও সোমবার বিকালে খাদ্য সহায়তা পাঠান। আজ মঙ্গলবার পুলিশের সহায়তায় তারা বাড়ি যেতে পেরে আনন্দিত।

হাওরে থাকতে বাধ্য হওয়া রিতা রানী জানান, তারা দুই বোন ঢাকায় কাজ করেন। এলাকায় ফেরার পর তাদের হাওরে থাকতে হয়েছে। রাতে পালা করে ঘুমাতে হয়েছে তাদের। একজন ঘুমালে আরেকজন পাহারা দিত।

হাওরে অবস্থান করা আরেকজন জানান, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দীপক সরকার ও মেম্বার দেবাশীষ চাপ সৃষ্টি করলে গ্রামের মানুষ হাওরে খুপড়ি ঘরে আলাদা করে রাখে। অথচ আমরা বাড়িতেই হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে প্রস্তুত ছিলাম।