ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৩০২ কেজি ওজনের মাখন মিয়া আর নেই

makhon-mia

অস্বাভাবিক ওজন নিয়ে শেষ পর্যন্ত চলে গেলেন না ফেরার দেশে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৩০২ কেজি ওজনের মাখন মিয়া (৪০)। সোমবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) রাত ১০টার ব্রাহ্মনবাড়িয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন তিনি। মাখন ব্রাহ্মনবাড়িয়া পৌরসভা শহরের দক্ষিণ মৌড়াইলের মিলন মিয়ার ছেলে।

মাখনের পরিবার সূত্রে জানা যায়, অস্বাভাবিক এই ওজন নিয়ে মানবেতর দিন কাটাছিলেন তিনি। এছাড়া গত কয়েকদিন যাবত মাখনের শ্বাসকষ্ট ও হৃদরোগজনিত সমস্যা দেখা দেয়। সোমবার তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে ব্রাহ্মনবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসেন পরিবারের লোকজন। রাত ১০টার দিকে তিনি মারা যান।

হাসপাতালটির জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. আব্দুল্লাহ আল-মামুন জানান, প্রচণ্ড শ্বাসকষ্ট ও হৃদরোগজনিত কারণে মাখনের মৃত্যু হয়েছে। পরিবারের কাছে মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে।

জানা যায়, ২০ বছর বয়স পর্যন্ত স্বাভাবিকই ছিলেন মাখন। তারপর হঠাৎ বাড়তে থাকে ওজন। শেষ পর্যন্ত তার ওজন ৩০২ কেজিতে থামে। চিকিৎসাও করেছেন একাধিকবার, কিন্তু অস্বাভাবিক ওজনের কারণ নির্ধারণ করতে পারেনি চিকিৎসকরা।

চিকিৎসা ব্যয় বহন করতে গিয়ে নিঃস্ব মাখনের পরিবার। দুই সন্তান ও স্ত্রীকে রেখে মাখন মারা যান।

মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) বাদ জোহর জানাজা শেষে স্থানীয় শহরের মোড়াইল কবরস্থানে মাখনের দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে।