পণ্য বোঝাই করার মতো করে ত্রিপল বাঁধা ট্রাকে ৬০ নারী-পুরুষ

প্রতীকী ছবি

করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি ঠেকাতে গত ১৪ এপ্রিল থেকে সারাদেশে নতুন করে লকডাউন আরোপ করা হয়েছে, গণপরিবহন চলাচলেও আরোপ করা হয়েছে নিষেধাজ্ঞা। কিন্তু সেখানে অভিনব উপায়ে পণ্যবাহী ট্রাকে চড়ে চলাচল করছে মানুষ। শনিবার গভীর রাতে ৬০ নারী-পুরুষকে আটক করেছে পুলিশ, যারা একটি ট্রাককে ত্রিপল দিয়ে ঢেকে যাতায়াত করছিলেন অভিনব পন্থায়।

ঈশ্বরদীর পাকশী হাইওয়ে থানার চৌকস পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানান, শনিবার রাতে ঢাকা থেকে যশোর যাচ্ছিল একটি ট্রাক। দাশুড়িয়া ট্রাফিক মোড়ে পাকশী হাইওয়ে থানা পুলিশ চেকপোস্টে সিগন্যাল দিলে ট্রাকটি সিগন্যাল অমান্য করে চলে যায়। সিগন্যাল অমান্য করার কারণে পাকশী হাইওয়ে থানা পুলিশ ট্রাকটির পিছু নেয়। প্রায় ১৩ কিলোমিটার গিয়ে রূপপুর গ্যাস পাম্পের সামনে থেকে ট্রাকটির গতি রোধ করতে সক্ষম হয় পাকশী হাইওয়ে থানা পুলিশ।

ওসি বলেন, ট্রাকটির ডালার ওপর ত্রিপল দিয়ে ঢেকে পণ্য বোঝাই করার মতো করে বাঁধা ছিল। বাইরে থেকে দেখে বোঝার উপায় ছিলোনা যে ভেতরে মানুষ আছে। মনে হবে পাথর বোঝাই বা পণ্য বোঝাই ট্রাক। চালককে জিজ্ঞাসার একপর্যায় স্বীকারোক্তি মেলে ট্রাকের ভেতর মানুষ আছে। পরে ট্রাকের ডালা খুলতেই সেখান থেকে দুই শিশু, ছয় নারীসহ ২৯ জন যাত্রী বেরিয়ে আসেন। এ ঘটনার আধা ঘণ্টা পরই একইভাবে আসা আরেকটি ট্রাকের ত্রিপল খুললে বেরিয়ে আসেন নারী-শিশুসহ আরও ৩১ জন। তারা জানান, করোনাভাইরাসের কারণে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হলে ঢাকার বিভিন্ন জায়গা থেকে তারা বাড়ি ফিরছিলেন।

পাকশী হাইওয়ে থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানান, ট্রাকদুটির ভেতরে ছোট ছোট চার্জার ফ্যানের ব্যবস্থা ছিল। ট্রাকদুটি পাকশী হাইওয়ে থানা পুলিশের হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।