দুই বছর মেয়াদ বাড়ছে পোশাক খাতে এসআরওর

Clothing sector

বাংলাদেশের তৈরি পোশাক শিল্পে গ্রীন বিল্ডিং সার্টিফিকেশন আছে এরূপ প্রতিষ্ঠান এবং গ্রীন বিল্ডিং সার্টিফিকেশন নেই এরূপ প্রতিষ্ঠানের করহার সংক্রান্ত এসআরওর মেয়াদ আরও দুই বছর বৃদ্ধির প্রস্তাব করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার (১১ জুন) জাতীয় সংসদে প্রস্তাবিত ২০২০–২১ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপনকালে এ প্রস্তাব উপস্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

২০২০–২১ অর্থবছরে প্রস্তাবিত বাজেটের আকার ধরা হয়েছে ৫ লাখ ৬৮ হাজার কোটি টাকা। এদিন বিকেল ৩টায় জাতীয় সংসদে প্রস্তাবিত বাজেট জাতীয় সংসদে উপস্থাপন শুরু করেছেন অর্থমন্ত্রী।

বাজেট প্রস্তাবনায় অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, বর্তমানে গ্রীন বিল্ডিং সার্টিফিকেশন আছে এরূপ তৈরি পোশাক প্রতিষ্ঠানের করহার ১০ শতাংশ এবং গ্রীন বিল্ডিং সার্টিফিকেশন নেই এরূপ তৈরি পোশাক প্রতিষ্ঠানের করহার ১২ শতাংশ। এই করহার সংক্রান্ত এস আর ও-এর মেয়াদ ৩০ জুন, ২০২০-এ শেষ হবে। আমি উক্ত এস আর ও-এর মেয়াদ আরও দুই বছর বৃদ্ধির প্রস্তাব করছি। আমি আশা করি তৈরি পোশাক খাতে নিয়োজিত করদাতাগণ করহার হ্রাসের ফলে উপকৃত হবেন।

অর্থমন্ত্রী প্রস্তাবিত বাজেটে আরও বলেন, বর্তমানে ব্যাংক, লিজিং, বীমাসহ সকল আর্থিক প্রতিষ্ঠান, মোবাইল ফোন কোম্পানি এবং সিগারেট কোম্পানির করহার ২৫ শতাংশ এবং পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত নয় এমন কোম্পানির করহার ৩৫ শতাংশ, যা ২০১৪-১৫ অর্থ বছর হতে অপরিবর্তিত আছে। করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের প্রেক্ষিতে করদাতাদের করভার লাঘবের লক্ষ্যে পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্তি নং এরূপ কোম্পানির করহার ৩৫ শতাংশ থেকে ২.৫ শতাংশ হ্রাস করে ৩২.৫ শতাংশে নির্ধারণের প্রস্তাব করছি।